আইসিটি ৩য় অধ্যায় সাজেশন । সৃজনশীল । এইচএসসি

আইসিটি ৩য় অধ্যায় সাজেশন । সৃজনশীল । এইচএসসিঃ এইচএসসি শিক্ষার্থীরা তোমাদের আসন্ন পরীক্ষার প্রস্তুতির জন্য এখানে অনেকগুলো সৃজনশীল প্রশ্ন উত্তরসহ দিয়েছি। তাই এগুলো অনুসরণ করতে পারলে পরীক্ষায় ভালো করা সম্ভব।

Read more:

অনুশীলন প্রশ্নঃ১ (উত্তরসহ)

১।

 ক লজিক গেইট কী?
খ XOR সকল মৌলিক গেইটের সমন্বিত লজিক গেইট- ব্যাখ্যা কর।
গ, উদ্দীপকের ফাংশনটির লজিক চিত্র আঁক এবং ব্যাখ্যা কর।
ঘ. উদ্দীপকের ফাংশনটি কি শুধু NAND গেইটের সাহায্যে বাস্তবায়ন করা সম্ভব? বিশ্লেষণ কর।

ক) : বুলিয়ান অ্যালজেবরায় মৌলিক কাজগুলো বাস্তবায়নের জন্য যে ডিজিটাল ইলেকট্রনিক সার্কিট বা বর্তনী ব্যবহার করা হয়, তাই লজিক গেইট বলে/ যে ডিজিটাল ডিভাইস যুক্তিমূলক সংকেতের প্রবাহ নিয়ন্ত্রন করে তাকে লজিক গেইট বলে।

খ) XOR গেইট সকল মৌলিক গেইটের সমন্বিত গেইট। কারণ AND, OR ,NOT ব্যবহার করে XOR গেইট বানানো হয়। XOR গেইটের সমীকরণ AB

শুধুমাত্র মৌলিক গেইট দিয়ে XOR গেইট বাস্তবায়নঃ

আইসিটি ৩য় অধ্যায় সাজেশন । সৃজনশীল । এইচএসসি

অনুশীলন প্রশ্নঃ২ (উত্তরসহ)

২। সত্যক সারণি দুটি লক্ষ কর এবং প্রশ্নগুলোর উত্তর দাও-

ক, ইউনিকোড কী?
বাইনারি 1 +1 ও বুলিয়ান 1+1 এক নয় বুঝিয়ে বল।
গ. উদ্দীপকের সত্যক সারণি-১ NAND লজিক গেইটকে নির্দেশ করে ব্যাখ্যা কর।
ঘ. উদ্দীপকের সত্যক সারণি-২ এর নির্দেশক লজিক গেইট দ্বারা সারণি ১ এর নির্দেশক গেইট বাস্তবায়ন অথবা R = PQ সমীকরণ বাস্তবায়ন সম্ভব বিশ্লেষণ কর।

ক) ইউনিকোড হচ্ছে পৃথিবীর প্রায় সব ভাষার লেখালেখিকে একটি পদ্ধতিতে সমন্বিত করার কোড।

খ) বাইনারি যোগের ক্ষেত্রে ব্যবহৃত হয়। এক্ষেত্রে 1+1=0 এবং ক্যারি 1 হয় । বুলিয়ান যোগের ক্ষেত্রে 1+1 = 1হয়। এতে বুঝা যাচ্ছে যে, বুলিয়ান যোগ (+) চিহ্ন সাধারণত + চিহ্নকে বুঝায় না। বুলিয়ান যোগকে বলা হয় Logical Addition অথবা Logical OR operation। এ থেকে বুঝায় যায় যে, বাইনারি 1+1 ও বুলিয়ান 1+1এক নয়।

আইসিটি ৩য় অধ্যায় সাজেশন । সৃজনশীল । এইচএসসি

অনুশীলন প্রশ্নঃ৩ (উত্তরসহ)

ক. 2-এর পরিপূরক কী?
খ, বাইনারি 1+1 ও বুলিয়ান 1+1 এক নয় বুঝিয়ে বল.
গ. উদ্দীপক অনুসারে y এর সরলীকৃত মান নির্ণয় কর।
ঘ, উদ্দীপকে 2 ও 3 নং চিহ্নিত গেইটদ্বয়ের পারস্পরিক পরিবর্তনে যে লজিক সার্কিট পাওয়া যায় তা বাইনারি যােগের বর্তনীতে ব্যবহার উপযােগী -মূল্যায়ন কর।

ক) ১-এর পরিপূরক-এর মানের সাথে ১ যোগ করলে যে মান বাযে সংখ্যা পাওয়া যায় তাকে 2 এর পরিপূরক গঠন বলে।

খ) বাইনারি যোগের ক্ষেত্রে ব্যবহৃত হয়। এক্ষেত্রে 1+1=0 এবং ক্যারি 1 হয় । বুলিয়ান যোগের ক্ষেত্রে 1+1 = 1হয়। এতে বুঝা যাচ্ছে যে, বুলিয়ান যোগ (+) চিহ্ন সাধারণত + চিহ্নকে বুঝায় না। বুলিয়ান যোগকে বলা হয় Logical Addition অথবা Logical OR operation। এ থেকে বুঝায় যায় যে, বাইনারি 1+1 ও বুলিয়ান 1+1এক নয়।

XOR গেইটের সত্যক সারণি( NAND এর স্থলে OR গেইট ) পারস্পারিক পরিবর্তনে XOR গেইট পাওয়া যায়।

আইসিটি ৩য় অধ্যায় সাজেশন । সৃজনশীল । এইচএসসি

অনুশীলন প্রশ্নঃ৪ (উত্তরসহ)

আইসিটি ৩য় অধ্যায় <a href=সাজেশন । সৃজনশীল । এইচএসসি”/>

ক, সত্যক সারণি কী?
খ, NAND গেইট দিয়ে OR গেইট বাস্তবায়ন কর ।
গ ব্লক চিত্র ক চিহ্নিত করে সত্যক সারণি ও লজিক বর্তনী অঙ্কন কর।
ঘ, কম্পিউটারের বোধগম্য ভাষাকে মানুষের বােধগম্য ভাষায় রূপান্তরিত করতে ব্লক চিত্রের কোনটির ভূমিকা অপরিহার্য-বিশ্লেষণ কর।

ক) একটি বিশেষ প্রক্রিয়ায় কোন ইনপুটের জন্য কোন আউটপুট পাওয়া যায় সেটি যদি একটি সারণি বা টেবিল দিয়ে পুরোপুরিভাবে প্রকাশ করা হয় সেটি হচ্ছে সত্যক সারণি বা ট্রুথ টেবিল।
আইসিটি ৩য় অধ্যায় <a href=সাজেশন । সৃজনশীল । এইচএসসি” class=”wp-image-14878″/>
ঘ কম্পিউটারের বোধগম্য ভাষাকে মানুষের বোধগম্য ভাষার রূপান্তরিত করতে ব্লক চিত্র-খ অর্থাৎ ডিকোডার ব্যবহৃত হয় । ডিজিটাল বর্তনীর সাহায্যে কম্পিউটারে ব্যবহৃত ভাষাকে মানুষের বোধগম্য ভাষায় রূপান্তর করার পদ্ধতিকে ডিকোডার বলে। কম্পিউটারের আউটপুট হডানটে কোড ভাষায় লেখা তথ্যকে সাধারণ আকারে প্রকাশ করতে ডিকোডারের প্রয়োজন হয়। কন্ট্রোল ইউনিটে বিভিন্ন নির্দেশ, মেমোরি অ্যাড্রেস, কাউন্টারের বাইনারি সংখ্যা ইত্যাদি ডিকোড করতে ডিকোডারের সাহায্য লাগে। ডিকোডার মেমোরি নয় কিন্তু মেমোরির মতো কাজ করে কম্পিউটারে ব্যবহৃত ভাষাকে মানুষের বোধগম্য ভাষায় রূপান্তর করে। তাই কম্পিউটারের বোধগম্য ভাষাকে মানুষের বোধগম্য ভাষায় রূপান্তরিত করতে ডিকোডার এর ভূমিকা অপরিহার্য।

আইসিটি ৩য় অধ্যায় সাজেশন । সৃজনশীল । এইচএসসি

অনুশীলন প্রশ্নঃ৫ (উত্তরসহ)

আইসিটি ৩য় অধ্যায় সাজেশন । সৃজনশীল । এইচএসসি

ক. সার্বজনীন গেইট কী?
খ, কোডেড ডেটাকে আনকোডেড ডেটায় রূপান্তরের ডিভাইসটি ব্যাখ্যা কর।
গ. চিত্র-১ ও চিত্র-২ এর সমন্বয়ে তৈরি যােগের বর্তনীটি বর্ণনা কর।
ঘ. চিত্র-১ ও চিত্র-২ এর সমন্বিত বর্তনী দ্বারা চিত্র-৩ বাস্তবায়ন।সম্ভব- বিশ্লেষণপূর্বক মতামত দাও।

ক) যেসব গেট দিয়ে মৌলিক গেটসহ অন্যান্য সকল প্রকার গেট তৈরি বা বাস্তবায়ন করা যায়, সে সকল গেট হচ্ছে সার্বজনীন গেট।
খ) কোডেড ডেটাকে আনকোডেড ডেটায় রূপান্তরের ডিভাইস হলাে ডিকোডার। ডিজিটাল বর্তনীর সাহায্যে কম্পিউটারে ব্যবহৃত ভাষাকে মানুষের বােধগম্য ভাষায় রূপান্তর করার পদ্ধতিকে ডিকোডার বলে। কম্পিউটারের আউটপুট ইউনিটে কোড ভাষায় লেখা তথ্যকে সাধারণ আকারে প্রকাশ করতে ডিকোডারের প্রয়ােজন হয়। কন্ট্রোল ইউনিটে বিভিন্ন নির্দেশ, মেমােরি অ্যাড্রেস, কাউন্টারের বাইনারি সংখ্যা ইত্যাদি ডিকোড করতে ডিকোডারের সাহায্য লাগে। ডিকোডার মেমােরি নয় কিন্তু মেমােরির মতাে কাজ করে।

গ) চিত্র-১ XOR গেইট এবং চিত্র-২ AND গেইট। এই দুটি গেইট মিলে হাফ অ্যাডার তৈরি হয়। যে অ্যাডার দুটি বিট যােগ করে যােগফল ও হাতে থাকা অঙ্ক বা ক্যারি বের করতে পারে তাকে হাফ অ্যাডার বলে। দুটি বিটের যােগফল এবং ক্যারি বের করার জন্য হাফ অ্যাডার ব্যবহার করা হয়। মনে করি, দুটি ইনপুট A ও B। এদের যােগফল S ও ক্যারি C। সত্যক সারণি থেকে S ও C এর শুধু ১ বিবেচনা করে নিচের সমীকরণ দুটি লেখা যায় ।

আইসিটি ৩য় অধ্যায় সাজেশন । সৃজনশীল । এইচএসসি

আইসিটি ৩য় অধ্যায় সাজেশন । সৃজনশীল । এইচএসসি
এবং
আইসিটি ৩য় অধ্যায় সাজেশন । সৃজনশীল । এইচএসসি

C2+C1

উপরিউক্ত ব্যাখ্যা থেকে বলা যায় যে, চিত্র ১ এবং চিত্র ২এর সমন্বিত বর্তনী চিত্র ৩ বাস্তবায়ন সম্ভব।

অনুশীলন প্রশ্নঃ৬ (উত্তরসহ)

ক এনকোডার কি?
খ ইউনিকোড বাংলা ভাষা বুঝতে পারে ব্যাখ্যা কর।
গ চিত্র-১ কোন গেইটের সাথে সাদৃশ্যপূর্ণ? তার বর্ণনা দাও।
ঘ. উদ্দীপকের চিত্র-৩ এর গেইট দিয়ে চিত্র-২ এর গেইটকে বাস্তবায়ন করা সম্ভব কি-না? বিশ্লেষণপূর্বক মতামত দাও।

ক) এনকোডার হলো এমন এক ধরনের সার্কিট যা আলাদা আলাদা লাইনের সিগন্যালকে এনকোড করে আউটপুট হিসেবে বাইনারি সংখ্যা প্রদান করে / যে সমন্বিত বর্তনী মানুষের বোধগম্য ভাষাকে কম্পিউটারের ভাষায় রূপান্তর করে তাকে এনকোডার বলে।

খ) ইউনিকোড বাংলা ভাষা বুঝতে পারে। ইউনিকোড হচ্ছে পৃথিবীর প্রায় সব ভাষার লেখালেখিকে একটি পদ্ধতিতে সমন্বিত করার কোড। ইউনিকোড কনসর্টিয়াম নামে একটি সংগঠন এটি রক্ষণাবেক্ষণ করে থাকে। 1991 সালে 24টি ভাষা নিয়ে ইউনিকোডের প্রথম সংস্করণ 1.0.0 প্রকাশিত হয় যেখানে বাংলা ভাষাও ছিল। সর্বশেষ ইউনিকোডের Standard অনুযায়ী যেখানে প্রত্যেকটা বর্ণের জন্য 000016 থেকে শুরু করে 10FFFF16 এর ভেতর একটি সংখ্যা নির্দিষ্ট করে দেওয়া আছে। যেমন : 099516 হচ্ছে বাংলা অক্ষর ‘ক’ । ইউনিকোডে প্রতিটি ভাষার জন্য 65,536 টি স্থান সংরক্ষণ করা আছে। 

গ চিত্র-১ হলো AND গেইট এর সাদৃশ্যপূর্ণ। যে গেইটের আউটপুট 1 হওয়ার জন্য প্রথম ও দ্বিতীয় দুটি ইনপুটকে 1 হতে হয় তাকে AND গেইট বলা হয়। অর্থাৎ, AND গেইটে সকল ইনপুট 1 হলে কেবলমাত্র আউটপুট 1 হবে। অন্যথায় আউটপুট 0 হবে। দুটি ইনপুট A ও B হলে আউটপুট X = AB হবে। এ ইলেকট্রনিক সার্কিট ব্যবহার করে গুণের কাজ বাস্তবায়ন করা হয়। 

চিত্রে, AND গেইটের সমকক্ষ একটি সার্কিট দেখানো হলো। এ সার্কিটে সুইচ দুটি A ও B এর যে কোনো একটি সুইচ অন করলে রাতিটি জ্বলবে না। কেবলমাত্র দুটি সুইচ অন করলেই বাতিটি জ্বলবে।

যেমন— ইনপুট A = 0, B = 0 হলে আউটপুট X = 0 হবে।
ইনপুট A = 1, B = 0 হলে আউটপুট X = 0 হবে।
ইনপুট A = 0, B = 1 হলে আউটপুট X = 0 হবে। 
এবং ইনপুট A = 1, B = 1 হলে আউটপুট X = 1 হবে।

চিত্রঃ AND গেইটের প্রতীক

ঘ) উদ্দীপকের চিত্র ৩ হলো NOR গেইট। এবং চিত্র ২ হলো XNOR Gate। শুধুমাত্র NOR দ্বারা XNOR গেইট বাস্তবায়ন করা সম্ভব।

অনুশীলন প্রশ্নঃ৭ (উত্তরসহ)

নিচের চিত্র দুটি লক্ষ কর এবং প্রশ্নগুলাের উত্তর দাও।

ক অ্যাডার কি?
খ, M(M + N) = M ব্যাখ্যা কর।
গ. Y এর মান সত্যক সারনিতে দেখাও।
ঘ, চিত্র-২ দ্বারা প্রক্তিনিধিত্বকারী গেইট দিয়ে চিত্র-১ এর সমতুল্য সার্কিট বাস্তবায়ন করা সব কি-না? বিশ্লেষণ কর।

ক) যে সমন্বিত সার্কিটের মাধ্যমে যোগ এর কাজ করা হয় তাকে অ্যাডার বলে।

অনুশীলন প্রশ্নঃ৮ (উত্তরসহ)

নিচের চিত্রটি লক্ষ কর-

ক. Universal গেট কী?
খ, কম্পিউটারের ভাষাকে মানুষের বােধগম্য ভাষায় রূপান্তরের সার্কিটটি ব্যাখ্যা কর।
গ. উদ্দীপকের বর্তনীটি মৌলিক গেট দিয়ে বাস্তবায়ন কর।
ঘ. উদ্দীপকের বর্তনীটিতে একটি ইনপুটের সংখ্যা হ্রাস করলে নতুন যে বর্তনীটি পাওয়া যাবে তা NAND গেট দ্বারা বাস্তবায়ন করে দেখাও।

ক) যে গেইট দিয়ে মৌলিক গেইট সহ অন্যান্য গেইট বাস্তবায়ন করা হয় তাকে ইউনিভার্সাল গেইট বলে।

খ) কম্পিউটারে ভাষাকে মানুষের বোধগম্য ভাষায় রূপান্তরের সার্কিটটি ডিকোডার। ডিজিটাল বর্তনীর সাহায্যে কম্পিউটারে ব্যবহৃত ভাষাকে মানুষের বোধগম্য ভাষায় রূপান্তর করার পদ্ধতিকে ডিকোডার বলে। কম্পিউটারের আউটপুট ইউনিটে কোড ভাষায় লেখা তথ্যকে সাধারণ আকারে প্রকাশ করতে ডিকোডারের প্রয়োজন হয়। কন্ট্রোল ইউনিটে বিভিন্ন নির্দেশ, মেমোরি অ্যাড্রেস, কাউন্টারের বাইনারি সংখ্যা ইত্যাদি ডিকোড করতে ডিকোডারের সাহায্য লাগে। ডিকোডার মেমোরি নয় কিন্তু মেমোরির মতো কাজ করে। কম্পিউটারে ব্যবহৃত ভাষাকে মানুষের বোধগম্য ভাষায় রূপান্তর করে। 

গ উদ্দীপকের বর্তনীটি ফুল অ্যাডার নির্দেশ করে। মৌলিক গেইট দিয়ে ফুল অ্যাডারের লজিক সার্কিট : ফুল অ্যাডারের সত্যক সারণি থেকে লেখা যায় যে,

ঘ উদ্দীপকের বর্তনীটিতে একটি ইনপুটের সংখ্যা হ্রাস করলে নতুন বর্তনীটি হবে হাফ অ্যাডার। এই হাফ অ্যাডারের যোগফল ও ক্যারিকে ন্যান্ড গেইট দিয়ে বাস্তবায়ন করা হলোঃ

অনুশীলন প্রশ্নঃ৯ (উত্তরসহ)

ক, কাউন্টার মোড কী?
খ, পাঁচ ইনপুটের অ্যান্ড গেইটি বাস্তবায়নে কয়টি ন্যান্ড গেইট প্রযােজন? বুঝিয়ে লিখ।
গ, Y এর সরলীকৃত মান নির্ণয় কর।
ঘ. “F.এর সরলীকৃত মানের গেইটটি বাইনারি যােগে ব্যবহৃত হয়- বিশ্লেষণ কর।

অনুশীলন প্রশ্নঃ১০ (উত্তরসহ)

ক) কোড কী?
খ) FF-এর পরের সংখ্যাটি 100-ব্যাখ্যা কর।
গ) উদ্দীপকের আউটপুট F এর মান সত্যক সারণিতে দেখাও।
ঘ) আউটপুট F-কে শুধুমাত্র A চিহ্নিত গেইটটি দিয়ে বাস্তবায়ন করো।

ক কম্পিউটারে বর্ণ, অক্ষর, শব্দ বা চিহ্নকে বাইনারিতে রূপান্তর করার প্রক্রিয়াই হচ্ছে কোড। 

খ) এটি একটি হেক্সাডেসিমেল সংখ্যা পদ্ধতির যোগ। হেক্সাডেসিমেল সংখ্যা পদ্ধতিতে FF + 1 = 100 হয়। এখানে F এর সাথে 1 যোগ করলে যোগফল হিসেবে নামবে 0 এবং ক্যারি হবে 1। এখন আবার । এর সাথে F যোগ করলে যোগফল হিসেবে নামবে 0 এবং ক্যারি 1,0 এর আগে বসবে। অর্থাৎ FF এর পরের সংখ্যাটি হবে 100 ।

অনুশীলন প্রশ্নঃ১১ (উত্তরসহ)

নিচের চিত্রটি লক্ষ কর এবং প্রশ্নের উত্তর দাও।

ক, বুলিয়ান ধ্রুবক কী?
খ, এনকোভার ডিজিটাল ডিভাইসে ব্যাপক ভূমিকা রাখে বুঝিয়ে লিখ ।
গ, শুধু মৌলিক গেইট ব্যবহার করে উদ্দীপকের সার্কিটটির সমতুল্য লজিক চিত্রের বাস্তবায়ন দেখাও।
ঘ. উদ্দীপকে সার্কিটের Q এর সমীকরণের সরলীকরণ কর এবং শুধু NAND গেইট ব্যবহার করে সরলীকরণের চিত্র আঁক।

ক) বুলিয়ান অ্যালজেবরায় ব্যবহৃত কোন রাশির মান যদি শুধুমাত্র ০ ও বা 1 নির্দেশ করে তবে তাকে বুলিয়ান ধ্রুবক বলা হয়। 

খ। ডিজিটাল সার্কিট দিয়ে তৈরি যন্ত্রপাতিকে ডিজিটাল ডিভাইস বলে। এনকোডার হচ্ছে এমন এক ধরনের লজিক সার্কিট, যা আমাদের ভাষাকে কম্পিউটারের বোধগম্য যান্ত্রিক ভাষায় রূপান্তর করে। এনকোডারের সাহায্যে যে কোন আলফানিউমেরিক বর্ণকে বিসিডি কোড, অ্যাস্কি, ইউনিকোড ইত্যাদি কোডে পরিণত করা যায়। সেজন্য ইনপুট ব্যবস্থায় বর্ণের এনকোডিং করার জন্য কী-বোর্ড, মাউস, বিভিন্ন ডিজিটাল ডিভাইসে এনকোডার ব্যবহৃত হয়। তাই এনকোডার ডিজিটাল ডিভাইসে ব্যাপক ভূমিকা রাখে। 

গ শুধু মৌলিক গেইট ব্যবহার করে উদ্দীপকের সার্কিটটির সমতুল্য লজিক চিত্র নিচে বাস্তবায়ন করা হলো-

আইসিটি ৩য় অধ্যায় সাজেশন । সৃজনশীল । এইচএসসি

Comments

No comments yet. Why don’t you start the discussion?

Leave a Reply