আঠারো বছর বয়স কবিতার সৃজনশীল সাজেশন ২০২৪ (এইচএসসি বাংলা ১মপত্র)

আঠারো বছর বয়স কবিতার সৃজনশীল সাজেশন ২০২৪ (এইচএসসি বাংলা ১মপত্র): শিক্ষার্থীরা তোমাদের বাংলা আঠারো বছর বয়স এর সর্বশেষ বোর্ড প্রশ্নসহ গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্নের সাজেশন এখানে দিয়েছি। আশাকরি তোমরা এখান থেকে প্রস্তুতি ও পরীক্ষার ধারণা নিতে পারবে।

আরো পড়ুনঃ

আঠারো বছর বয়স কবিতার সৃজনশীল সাজেশন ২০২৪ (এইচএসসি বাংলা ১মপত্র

সৃজনশীল সাজেশন

  1. ১) আমি পথ সম্মুখে যাহা পাই যাই চূর্ণি।
  2. আমি নৃত্য-পাগল ছন্দ,
  3. আমি আপনার তালে নেচে যাই, আমি মুক্ত জীবনানন্দ,
  4. আমি কভু প্রশান্ত, কভু অশান্ত দারুণ স্বেচ্ছাচারী,
  5. আমি অরুণ খুনের তরুণ, আমি বিধির দর্পহারী।

ক) ক্ষত-বিক্ষত হয় কত প্রাণ?
খ) আঠারো বছর বয়স কাঁদতে জানে না কেন? বুঝিয়ে দাও।
গ) উদ্দীপকের কোন স্তবকে যৌবনের নেতিবাচক দিকের ইঙ্গিত দেওয়া হয়েছে?- নিরূপণ কর।
“ঘ) “উদ্দীপক দুটির কবিতাংশের মূল ভাবে সামান্য পার্থক্য পরিলক্ষিত হয়।”— উক্তিটির যথার্থতা বিশ্লেষণ কর।

আঠারো বছর বয়স কবিতার সৃজনশীল সাজেশন ২০২৪ (এইচএসসি বাংলা ১মপত্র

২) (i) আঠারো বছর বয়স যে দুর্বার
পথে প্রান্তরে ছোটায় বহু তুফান
দুর্যোগে হাল ঠিকমতো রাখা ভার
ক্ষত-বিক্ষত হয় সহস্র প্রাণ।
(ii) নবীন জগৎ সন্ধানে যারা ছুটে মেরু-অভিযানে
পক্ষ বাঁধিয়া উড়িয়া চলেছে যাহারা ঊর্ধ্বপানে
তবুও থামে না যৌবন বেগ, জীবনের উল্লাসে
চলেছে চন্দ্ৰ-মঙ্গল গ্রহে স্বর্গে অসীমাকাশে।

ক) ‘ছাড়পত্র’ কাব্যগ্রন্থের রচয়িতা কে?
খ) আঠারো বছর বয়সে কানে মন্ত্রণা আসে কেন? ব্যাখ্যা কর।
গ) উদ্দীপকের কবির সাথে ‘আঠারো বছর বয়স’ কবিতার কিসের সাদৃশ্য রয়েছে?
ঘ) উদ্দীপকটি সম্পূর্ণভাবে ‘আঠারো বছর বয়স’ কবিতার মূলভাবকে প্রকাশ করে কি? তোমার মতের পক্ষে যুক্তি দাও।

৩। আমরা চলিব পশ্চাতে ফেলিয়া পচা অতীত,
গিরি-গুহা ছাড়ি খোলা প্রান্তরে গাহিব গীত,
সৃজিব জগৎ বিচিত্রতর, বীর্যবান,
তাজা জীবন্ত সে নব সৃষ্টি শ্রম-মহান,
চলমান বেগে প্রাণ উচ্ছল ।
রে নব যুগের স্রষ্টাদল,
জোর-কদম চল রে চল।
‘ছাড়পত্র’ কোন শ্রেণির রচনা?

ক) আঠারো বছর বয়স যে দুর্বার, কেন? ব্যাখ্যা কর।
খ) অনুচ্ছেদ এবং ‘আঠারো বছর বয়স’ কবিতার সাদৃশ্য দেখাও ।
“ঘ) ‘চলমান বেগে প্রাণ উচ্ছল।’ মন্তব্যটি ‘আঠারা বছর বয়স’ কবিতা ও অনুচ্ছেদের আলোকে মূল্যায়ন কর।

আঠারো বছর বয়স কবিতার সৃজনশীল সাজেশন ২০২৪ (এইচএসসি বাংলা ১মপত্র

৪) দুজন মনোবিজ্ঞানীর মতামত
সিগমন্ড ফ্রয়েড : ১৬-১৮ বছর বয়সে ছেলেমেয়েরা বিপরীত লিঙ্গের প্রতি প্রেমের আসক্তিতে ভোগে। স্বীয় সৌন্দর্য ও পোশাক-পরিচ্ছদ সম্পর্কে অত্যধিক সচেতন হয়ে ওঠে এ বয়সেই (সাইকো-এনালাইটিক তত্ত্ব)। এরিক এরিকসন : ১৩ থেকে ১৯ বছর বয়সের স্তরটি না শিশু না যুবক। এ বয়সে স্বীয় চিন্তার চেয়ে সমাজ চিন্তায় প্রবল হয়ে ওঠে। সমাজের উন্নতির জন্য প্রতিবাদীও হয়ে ওঠে এ বয়সীরাই। আবার সামাজিক মূল্যবোধের বিরুদ্ধাচারণ করে এ বয়সেই (সাইকো-সোস্যাল তত্ত্ব)।

ক) ‘আঠারো বছর বয়স’ কবিতাটি কোন কাব্যগ্রন্থ থেকে নেওয়া হয়েছে?
খ) কবি আঠারো বছর বয়সকে দুঃসহ বলেছেন কেন? ব্যাখ্যা কর।”
গ) ‘আঠারো বছর বয়স’ কবিতার কবির মনোভাবের সাথে সিগমন্ড ফ্রয়েডের বক্তব্যের বৈপরীত্যটি ব্যাখ্যা কর।
ঘ) কবির দৃষ্টিভঙ্গি যেন এরিক এরিকসনের বক্তব্যের প্রতিফলন- বিশ্লেষণ কর।

৫) তোমরা ভয় দেখিয়ে করছ শাসন, জয় দেখিয়ে নয়;
সেই ভয়ের ঝুঁটিই ধরব টিপে; করব তারে জয়।
মোরা আপনি ম’রে মরার দেশে আনব বরাভয়,
মোরা ফাঁসি পরে আনব হাসি মৃত্যু জুয়ের ফল ।

ক) সুকান্ত ভট্টাচার্য কত বছর বেঁচেছিলেন?
খ আঠারো বছর বয়সকে কেন শ্রেষ্ঠ সময় বলা হয়েছে? বুঝিয়ে দাও।
গ) ‘আঠারো বছর বয়স’ কবিতার নবীনদের সঙ্গে উদ্দীপকের নবীনদের তুলনা কর।
ঘ) “মোরা আপনি মরে মরার দেশে আনব বরাভয়’- ‘আঠারো বছর বয়স’ কবিতার আলোকে উদ্দীপকের এই উক্তিটির তাৎপর্য নির্ণয় কর।

আঠারো বছর বয়স কবিতার সৃজনশীল সাজেশন ২০২৪ (এইচএসসি বাংলা ১মপত্র

৬। দুরন্ত পথিক দুর্বার তারুণ্যের প্রতীক। সে বিপ্লবের অগ্নিমন্ত্রে দীক্ষিত মুক্তিসৈনিক।মৃত্যুভয়কে তুচ্ছজ্ঞান করে সে বিপদসংকুল দুর্গম পথে এগিয়ে চলে। তার মরণ নেই যেন, সে অবিনশ্বর। পথ চলতে সে কখনো যায় না থেমে।

ক) আঠারো বছর বয়স বাষ্পের বেগে কিসের মতো চলে?
খ) এ দেশের বুকে আঠারো আসুক নেমে ব্যাখ্যা কর।
গ উদ্দীপকে ‘আঠারো বছর বয়স’ কবিতার কোন বিশেষ দিকটি অনুপস্থিত? বর্ণনা কর।
ঘ) উদ্দীপক এবং আঠারো বছর বয়স’ কবিতার চেতনা সর্বজন কর্তৃক অনুকরণীয়— উক্তিটি বিশ্লেষণ কর।

  1. ৭) মোরা ঝঞ্ঝার মতো উদ্দাম
  2. মোরা বিধাতার মতো নির্ভয়
  3. মোরা প্রকৃতির মতো বাধাহীন
  4. মোরা মরুসঞ্চার বেদুঈন।

ক) তরুণরা আত্মাকে কার কাছে সমর্পণ করে?
খ) ‘এ বয়স জানে রক্তদানের পুণ্য’ বলতে কী বোঝানো হয়েছে?
গ) ‘আঠারো বছর বয়স’ কবিতার নবীনদের সাথে উদ্দীপকের নবীনদের সাদৃশ্য নির্ণয় কর।
ঘ) উদ্দীপকে ‘আঠারো বছর বয়স’ কবিতার মর্মবাণী প্রতিফলিত হয়েছে- কীভাবে এবং কতখানি তা বিশ্লেষণ করে দেখাও।

আঠারো বছর বয়স কবিতার সৃজনশীল সাজেশন ২০২৪ (এইচএসসি বাংলা ১মপত্র

৮। যৌবনের মাতৃরূপ দেখিয়াছি শব বহন করিয়া যখন সে যায় শ্মশান ঘাটে, গোরস্থানে, যখন সে অন্ন পরিবেশন করে দুর্ভিক্ষ বন্যা পীড়িতদের মুখে, বন্ধুহীন রোগীর শয্যাপার্শ্বে যখন সে রাত্রি জাগিয়া পরিচর্যা করে, – ইহাই যৌবন, এই ধর্ম যাহাদের তাহারাই তরুণ।

ক) ‘আঠারো বছর বয়স’ কবিতাটি কোন ছন্দে রচিত?
খ) ‘এ দেশের বুকে আঠারো আসুক নেমে ।’- উক্তিটির মর্মার্থ কী?
গ) উদ্দীপকের আলোচ্য বিষয় এবং আঠারো বছর বয়স’ কবিতার ইতিবাচক দিকগুলো তুলে ধর।
ঘ) ইহাই যৌবন, এই ধর্ম যাহাদের তাহারাই তরুণ।’— উক্তিটি ‘আঠারো বছর বয়স’ কবিতার আলোকে বিশ্লেষণ কর।

৯। কিছু উদ্যমী তরুণ যুবক আর একটি ক্যামেরাই সৃষ্টি করল ইতিহাস। টানা ২৩ ঘণ্টার চেষ্টার পর উদ্ধার হলো ছোট্ট শিশু জিহাদ। তবে জীবিত নয়, মৃত। ১০-১৫ জন উদ্যমী তরুণ-যুবকের একটি দলই টেনে তুলে আনে জিহাদের দেহ।… শাহজাহানপুরের রেলওয়ে কলোনিতে পাইপের ভেতর শিশু আটকে যাওয়ার পর শুক্রবার রাতেই তারা ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে এ অভিযান চালায়।

ক. আঠারো বছর বয়স শপথের কোলাহলে কী করে?
খ কবি আঠারো বছর বয়সকে ভয়ংকর বলেছেন কেন? বুঝিয়ে দাও
গ উদ্দীপকটি আঠারো বছর বয়সের কোন বৈশিষ্ট্যকে নির্দেশ করে? ব্যাখ্যা কর।
ঘ) “মানবকল্যাণে আঠারো বছর বয়স সর্বদাই অগ্রণী ভূমিকা পালন করে।” উদ্দীপক এবং আঠারো বছ বয়স’ কবিতার আলোকে মন্তব্যটি বিশ্লেষণ কর।

আঠারো বছর বয়স কবিতার সৃজনশীল সাজেশন ২০২৪ (এইচএসসি বাংলা ১মপত্র

১০) দৃশ্য-১ : মালালা আঠারো বছর বয়সী এক তরুণী। সে নারীশিক্ষার অধিকার আদায়ে এক অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে। তালেবানের হুমকি সহ্য করে এখনো মেয়েদের শিক্ষার অধিকার আদায়ে লড়ে যাচ্ছে।

দৃশ্য-২ : প্রীতিলতা ওয়াদ্দেদার ব্রিটিশবিরোধী আন্দোলনে শহিদ হন। দেশের প্রয়োজনে নিজের জীবন উৎসর্গ করতে এতটুকু পিছপা হননি।

ক. আঠারো বছর বয়স পদাঘাতে কী ভাঙতে চায়?
খ) দুর্যোগে হাল ঠিকমতো রাখা ভার – পঙ্ক্তিটিতে কবি কী বুঝিয়েছেন?
গ) উদ্দীপকের দৃশ্য-২ এ ‘আঠারো বছর বয়স’ কবিতার কোন দিকটির প্রতিফলন ঘটেছে?
ঘ) “উদ্দীপকের দৃশ্য দুটিতে কবিতার সমগ্র ভাব ফুটে ওঠেনি।” এই মন্তব্যটির বিশ্লেষণ কর।

১১) শব বহন করিয়া যখন সে যায় শ্মশানঘাটে, গোরস্থানে, অনাহারে থাকিয়া যখন সে অন্ন পরিবেশন করে দুর্ভিক্ষ বন্যা-পীড়িতদের মুখে, বন্ধুহীন রোগীর শয্যা পার্শ্বে যখন সে রাত্রির পর রাত্রি জাগিয়া পরিচর্যা করে, যখন সে পথে পথে গান গাহিয়া ভিখারী সাজিয়া দুর্দশাগ্রস্তদের জন্য ভিক্ষা করে, যখন দুর্বলের পাশে বল হইয়া দাঁড়ায়, এই ধর্ম যাহাদের তাহারাই তরুণ।

ক) সুকান্ত ভট্টাচার্য কোন শিল্পী সংঘের পক্ষে একটি কাব্যগ্রন্থ সম্পাদনা করেন?
খ) এ বয়স জানে রক্তদানের পুণ্য— বলতে কী বোঝায়?
গ) উদ্দীপকের বিষয়বস্তু পাঠ্য ‘আঠারো বছর বয়স’ কবিতার কোন ভাবের সাথে তুলনা করা চলে? ব্যাখ্যা কর।
ঘ) “উদ্দীপকটি ‘আঠারো বছর বয়স’ কবিতাটির প্রতিনিধিত্ব করছে।”- উক্তিটি বিশ্লেষণ কর।

আঠারো বছর বয়স কবিতার সৃজনশীল সাজেশন ২০২৪ (এইচএসসি বাংলা ১মপত্র

এই আঠারো বছর বয়স কবিতার সৃজনশীল সাজেশন ২০২৪ (এইচএসসি বাংলা ১মপত্র ছাড়াও আরো জানুন