ICT Number System CQ Suggestion

ICT Number System CQ Suggestion: সংখ্যাপদ্ধতি ও ডিজিটাল ডিভাইস সৃজনশীল বোর্ড প্রশ্ন ও উত্তর সমূহ নিচে দেওয়া হয়েছে।

এইচএসসি আইসিটির সব অধ্যায় পেতে ক্লিক করোঃ আইসিটি সাজেশন

সর্বশেষ আপডেট প্রশ্ন ও সাজেশন উত্তরসহ

আপডেট প্রশ্ন ও উত্তরঃ ০১

১। রনি এবং জনি এবারের একুশের বইমেলা থেকে যথাক্রমে (346)8 এবং (10110110)2 টাকার বই কিনেছিল।DH23

ক. ASCII কোড কী?
খ. “কোডেড ডেটাকে আনকোডেড ডেটায় রূপান্তর করা সম্ভব।”- ব্যাখ্যা কর।
গ. উদ্দীপকের রনি এবং জনি মোট কত টাকার বই কিনেছিল তা ডেসিমেল পদ্ধতিতে নির্ণয় কর।
ঘ. উদ্দীপকের দুইজনের মধ্যে কে বেশি মূল্যের বই কিনেছিল তা ২-এর পরিপূরক পদ্ধতিতে নির্ণয় কর।

প্রশ্নের উত্তর :

ক) ASCII এর পূর্ণনাম American Standard Code for Information Interchange I / ASCII একটি বহুল প্রচলিত ৮বিট কোড। যে কোডে বামের তিনটি বিটকে Zone bit এবং ডানের চারটিকে Number bit হিসেবে ধরা হয়, তাকে ASCII কোড বলে। বর্তমানে ASCII ৮ বিটের কোড। এটি প্রথম দিকে ৭ বিটের কোড ছিলো।

খ) ডিকোডারের মাধ্যমে কোডেড ডেটাকে আনকোডেড ডেটায় রূপান্তর করা সম্ভব। ডিকোডার এক ধরনের সমবায় বা সমন্বিত সার্কিট বা ডিজিটাল বর্তনী, যা ডিজিটাল সিস্টেমের বোধগম্য ভাষা বা কোডকে মানুষের বোধগম্য ভাষা বা ফরম্যাটে রূপান্তরিত করে। ডিকোডার একটি বহুল ব্যবহৃত ইলেকট্রনিক যন্ত্র। এর মাধ্যমে বাইনারি সংখ্যাকে সমতুল্য দশমিক সংখ্যায় রূপান্তর করা, বিভিন্ন ভাষায় লিখিত সংখ্যাকে দশমিক সংখ্যায় রূপান্তর করা, ASCII ও EBCDIC কোডকে আলফানিউমেরিক কোডে রূপান্তর করা সহ নানারকম ডিকোডিং এর কাজ করা যায় ।

আপডেট প্রশ্ন ও উত্তরঃ ০২

২। একটি কলেজের একাদশ শ্রেণির বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী X-এর অর্ধ-বার্ষিক পরীক্ষায় মেধাক্রম ছিল (2F)16। বার্ষিক পরীক্ষায় তার মেধাক্রম হলো (14)16

ক. চিহ্নযুক্ত সংখ্যা কাকে বলে?
খ. ASCII কোড একটি আলফানিউমেরিক কোড- ব্যাখ্যা কর।
গ. X-এর অর্ধ-বার্ষিক পরীক্ষার মেধাক্রম বাইনারি ও অক্টাল সংখ্যা পদ্ধতিতে রূপান্তর কর।
ঘ. উদ্দীপকে X এর পরীক্ষা দুটির ফলাফলের পার্থক্য যোগের মাধ্যমে নির্ণয় কর।

প্রশ্নের উত্তর

ক) ক ধনাত্মক ও ঋণাত্মক সংখ্যা বুঝানোর জন্য সংখ্যার পূর্বে +/- চিহ্ন দিতে হয় । চিহ্ন বা সাইনযুক্ত সংখ্যাকে চিহ্নযুক্ত সংখ্যা বা সাইন্ড নাম্বার বলে। অথবা কোন সংখ্যা ধনাত্নক নাকি ঋণাত্নক তা বুঝানোর জন্য সংখ্যার পূর্বে +/- চিহ্ন দেওয়া হয়, এটিকে চিহ্নযুক্ত সংখ্যা  বলে

খ কম্পিউটারে সংখ্যার সাথে সাথে বর্ণ, যতিচিহ্ন, গাণিতিক চিহ্ন ইত্যাদি ব্যবহার করতে হয়। যে কোডিংয়ে সংখ্যার সাথে সাথে অক্ষর, যতিচিহ্ন, গাণিতিক চিহ্ন ইত্যাদি ব্যবহার করা যায় সেগুলোতে আলফা নিউমেরিক কোড ব্যবহার করা হয়। ASCII একটি সাত বিটের আলফানিউমেরিক কোড। ASCII কোডে ছোট হাতের, বড় হাতের ইংরেজি অক্ষর, সংখ্যা, যতি চিহ্ন, গাণিতিক চিহ্ন ব্যবহার করা হয় । তাই ASCII কোড একটি আলফানিউমেরিক কোড।

খ এর বিকল্প উত্তর

উত্তর : যে কোডে বামের তিনটি বিটকে Zone bit এবং ডানের চারটিকে Number bit হিসেবে ধরা হয়, তাকে ASCII কোড বলে। বর্তমানে ASCII ৮ বিটের কোড। এটি প্রথম দিকে ৭ বিটের কোড ছিলো। ইউনিকোডের পূর্বে সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত আলফানিউমেরিক্যাল কোডটি হলো অ্যাসকি (ASCII) কোড।ASCII হচ্ছে American Standard Code for Information Interchange কথাটির সংক্ষিপ্ত রূপ। এটি প্রাথমিকভাবে টেলিপ্রিন্টারে ব্যবহার করার জন্য তৈরি করা হয়েছিল এবং পরবর্তীকালে কম্পিউটারে এটি সমন্বয় করা হয়। সাত বিটের কোড হওয়ার কারণে এখানে সব মিলিয়ে 128 টি চিহ্ন প্রকাশ করা যায়। ইদানীং 16, 32 কিংবা 64 বিট কম্পিউটারের প্রচলনের জন্য অষ্টম বিট যুক্ত করে Extended ASCII তে আরো 128 টি চিহ্ন নানাভাবে ব্যবহার হলেও প্রকৃত ASCII বলতে এখনো মূল 128 টি চিহ্নকেই বোঝানো হয় ।

আপডেট প্রশ্ন ও উত্তরঃ ০৩

৩। স্যার আইসিটি ক্লাসে দু’জন ছাত্রকে দুটি দশমিক সংখ্যা লিখতে বলায় একজন (+63) এবং অন্যজন (+70) লিখলো। তখন স্যার বললেন আমি 0, 1, 2, 3 ও 4 দিয়ে নতুন একটি সংখ্যা পদ্ধতি আবিষ্কার করেছি। JS23

ক. র‍্যাডিক্স পয়েন্ট কী?
খ. 9+7= 20 কীভাবে সম্ভব তা দেখাও।
গ. (2FC)16 সংখ্যাটিকে স্যারের নতুন সংখ্যা পদ্ধতিতে রূপান্তর কর।
ঘ. উদ্দীপকের দশমিক সংখ্যার দুটির পার্থক্য যোগের মাধ্যমের বের কর।

প্রশ্নের উত্তর

ক) উত্তর : পজিশনাল সংখ্যা পদ্ধতিতে কোনো সংখ্যার পূর্ণসংখ্যা ও ভগ্নাংশকে যে চিহ্ন দ্বারা আলাদা করা হয় তাই র‍্যাডিক্স বিন্দু বা ফ্লোটিং পয়েন্ট বলে।

খ) উত্তর : এটি একটি অক্টাল সংখ্যা পদ্ধতির যোগ। দশমিক সংখ্যা পদ্ধতিতে 9 + 7 = 16 হয়। কিন্তু অক্টাল পদ্ধতিতে যোগ করলে 9+7= 20 হয়। অক্টাল পদ্ধতিতে 7 এর পরবর্তী সংখ্যা 10 যা দশমিক সংখ্যা পদ্ধতির জন্য হবে ৪। তাই এক্ষেত্রে 9 ও 7 এর যোগফল অক্টাল সংখ্যাপদ্ধতিতে 20 হবে।

আপডেট প্রশ্ন ও উত্তরঃ ০৪

৪। মামুন জয়পুরহাট থেকে ঢাকা যাওয়ার জন্য (112)8 টাকায় টিকিট কিনল। মামুনের বন্ধু আবির নারায়ণগঞ্জ থেকে ঢাকা আসার জন্য (3D)16 টাকায় টিকিট কিনল ।

ক. পজিশনাল সংখ্যা পদ্ধতি কী?
খ. (14)10 এর সমকক্ষ BCD কোড এবং বাইনারি সংখ্যার মধ্যে কোনটিতে বেশি বিট প্রয়োজন? বুঝিয়ে লিখ।
গ. মামুন ও আবির মোট কত টাকার টিকিট ক্রয় করল তা বাইনারিতে প্রকাশ কর।
ঘ. মামুন ও আবিরের টিকিটের ক্রয়মূল্যের পার্থক্য যোগের মাধ্যমে নির্ণয় সম্ভব— বিশ্লেষণ কর।

প্রশ্নের উত্তর

যে সংখ্যা পদ্ধতিতে চিহ্ন বা প্রতীক কোন অবস্থানে ব্যবহার করা হচ্ছে তার উপর মান নির্ভর করে, সে পদ্ধতি হচ্ছে পজিশনাল সংখ্যা পদ্ধতি । Alternative Ansewer: যে সংখ্যা পদ্ধতিতে ব্যবহৃত প্রতীক বা চিহ্নগুলোর স্থানভিত্তিক মান থাকে , তাকে পজিশনাল বা স্থানিক সংখ্যা পদ্ধতি বলে।

প্রতিটি দশমিক সংখ্যা প্রকাশ করার জন্য বিসিডি কোডে চারটি বাইনারি বিটের বিন্যাস ব্যবহার করা হয়। 1এর বিসিডি কোড 0001 এবং 4 এর বিসিডি কোড 0100. সুতরাং (14)10 এর সমকক্ষ বিসিডি কোড 00010100 যেখানে সর্বমোট ৮ টি বাইনারি বিটের প্রয়োজন হয়েছে। আবার (14) 10 এর সমতুল্য বাইনারি মান 1110 যেখানে সর্বমোট 4 টি বাইনারি বিটের প্রয়োজন পড়েছে। সুতরাং’ (14)10 এর সমকক্ষ বিসিডি কোড এ বেশি বিট প্রয়োজন ।

আপডেট প্রশ্ন ও উত্তরঃ ০৫

৫। X = (123)n এবং Y = (43) 16 CTG23

ক. BCD কোড কী?
খ. 5 + 3 = 10 ব্যাখ্যা কর।
গ. X সংখ্যাটির দশমিক সংখ্যামান (83)10 হলে n এর মান কত?
ঘ. X – Y গাণিতিক প্রক্রিয়াটি ২ এর পরিপুরকের সাহায্যে যোগের মাধ্যমে করা যায়- উক্তিটির গাণিতিক বিশ্লেষণ কর ।

প্রশ্নের উত্তর

ক) একটি দশমিক সংখ্যার প্রত্যেকটি অঙ্ককে আলাদাভাবে চারটি বাইনারি বিট দিয়ে প্রকাশ করাকে বিসিডি কোড বলে । Alternative Answer: দশমিক সংখ্যা পদ্ধতির  প্রত্যেকটি অঙ্ককে সমতুল্য চার বিট বাইনারিতে প্রকাশ করাকে বিসিডি কোড বলে। এর পূর্ণরূপ Binary Coded Decimal.

খ) এটি একটি অক্টাল সংখ্যা পদ্ধতির যোগ। দশমিক সংখ্যা পদ্ধতিতে 5 + 3 = ৪ হয়। কিন্তু অক্টাল পদ্ধতিতে যোগ করলে 5 + 3=10 হয়। অক্টাল পদ্ধতিতে 7 এর পরবর্তী সংখ্যা 10 বা দশমিক সংখ্যা পদ্ধতির সমতুল্য মান ৪।

আপডেট প্রশ্ন ও উত্তরঃ ০৬

৬। নিচের উদ্দীপকটি লক্ষ কর- Syl 23

বাইনারী সংখ্যা
100010১ম
100100২য়
100110৩য়
?৪র্থ
101010৫ম

ক. বিট কী?
খ. প্রায় সকল ভাষাকে সমন্বিত করার কোড ব্যাখ্যা কর।
গ. উদ্দীপকের ৫ম সংখ্যাটিকে অক্টাল, দশমিক হেক্সাডেসিমেল সংখ্যা পদ্ধতিতে রূপান্তর কর।
ঘ. ২-এর পরিপূরক পদ্ধতি ব্যবহার করে উদ্দীপকের ধারাটির ৪র্থ সংখ্যা থেকে ২য় সংখ্যার পার্থক্য নিরূপণ কর।

প্রশ্নের উত্তর :

ক) বাইনারি অঙ্কের সংক্ষিপ্ত রূপ হলো বিট । বিট হলো 0 ও 1।

খ) ইউনিকোড হচ্ছে পৃথিবীর প্রায় সব ভাষার লেখালেখিকে একটি পদ্ধতিতে সমন্বিত করার কোড। 2020 সালে ইউনিকোডের 13 সংস্করণে 154 টি ভাষা স্থান পেয়েছে। সর্বশেষ ইউনিকোডের Standard অনুযায়ী যেখানে প্রত্যেকটা বর্ণের জন্য 000016 থেকে শুরু করে 10FFFF16 এর ভেতর একটি সংখ্যা নির্দিষ্ট করে দেওয়া আছে।ইউনিকোডে প্রতিটি ভাষার জন্য 65536 টি স্থানে সংরক্ষণ করা আছে। সেজন্য আগে যে সমস্ত ভাষা কয়েক হাজার চিত্রকল্প দিয়ে লিখতে হতো (চীনা, জাপানি কিংবা কোরিয়ান) বলে কম্পিউটারে প্রক্রিয়া করা কঠিন ছিল, সেগুলোও এখন ইউনিকোডে সংকুলান করা গেছে।

গ এর উত্তরঃ নিজে করি
ঘ এর উত্তরঃ নিজে করি

আপডেট প্রশ্ন ও উত্তরঃ ০৭

৭। সম্প্রতি ‘লাল’ ও ‘সবুজ’ দলের মধ্যে একটি টেস্ট ম্যাচ আয়োজন করা হয়েছিল। ‘লাল’ দল প্রথম ইনিংসে করে (1101010)2 রান সবুজ দল প্রথম ইনিংসে ৯ উইকেটে করে (347)10 রান। লাল দল দ্বিতীয় ইনিংসে (C3 )16 রান। BR23

ক. ভিত্তি কী?
খ. “পৃথিবীর সব মাতৃভাষার বর্ণকে ইউনিকোড কম্পিউটারের বর্ণে পরিবর্তিত করেছে” –ব্যাখ্যা কর।
গ. ‘সবুজ’ দলের প্রথম ইনিংসের রান হেক্সাডেসিমেল সংখ্যা পদ্ধতিতে রূপান্তর কর।
ঘ. ‘লাল’ দলের দুই ইনিংসের রানের যোগফল সবুজ দলের প্রথম ইনিংসের চেয়ে কম না বেশি? ব্যাখ্যা কর।

প্রশ্নের উত্তর

ক কোনো সংখ্যা পদ্ধতিতে একটি সংখ্যা বোঝানোর জন্য সর্বমোট যতগুলো চিহ্ন ব্যবহার করতে হয়, সেটি হচ্ছে সংখ্যাটির ভিত্তি বা বেজ।/ কোন সংখ্যা  পদ্ধতিতে যতটি সাংকেতিক চিহ্ন বা প্রতীক ব্যবহৃত হয় , তাকে ঐ সংখ্যা পদ্ধতির ভিত্তি বা বেজ বলে।

খ) ইউনিকোড হচ্ছে পৃথিবীর প্রায় সব ভাষার লেখালেখিকে একটি পদ্ধতিতে সমন্বিত করার কোড। 2020 সালে ইউনিকোডের 13 সংস্করণে 154 টি ভাষা স্থান পেয়েছে। সর্বশেষ ইউনিকোডের Standard অনুযায়ী যেখানে প্রত্যেকটা বর্ণের জন্য 000016 থেকে শুরু করে 10FFFF16 এর ভেতর একটি সংখ্যা নির্দিষ্ট করে দেওয়া আছে।ইউনিকোডে প্রতিটি ভাষার জন্য 65536 টি স্থানে সংরক্ষণ করা আছে। সেজন্য আগে যে সমস্ত ভাষা কয়েক হাজার চিত্রকল্প দিয়ে লিখতে হতো (চীনা, জাপানি কিংবা কোরিয়ান) বলে কম্পিউটারে প্রক্রিয়া করা কঠিন ছিল, সেগুলোও এখন ইউনিকোডে সংকুলান করা গেছে।

গ এর উত্তরঃ নিজে করি
ঘ এর উত্তরঃ নিজে করি

আপডেট প্রশ্ন ও উত্তরঃ ০৮

৮। কাকলী, পলি ও কণা তিন বান্ধবী। কাকলী ও পলি মার্কেটে গিয়ে নিজেদের জন্য একটি করে পোশাক কিনলো। পরবর্তীতে কণা তাদের পোশাকের দাম জানতে চাইলে কাকলী বলল (167)8 টাকা ও পলি বলল (79)16 টাকা।DJ23

ক. সংখ্যা পদ্ধতির বেজ বা ভিত্তি কী?
খ. বহুল ব্যবহৃত ৮ বিট কোডটি ব্যাখ্যা কর।
গ. কাকলী ও পলির পোশাকের দাম দশভিত্তিতে প্রকাশ কর।
ঘ. যোগের মাধ্যমে কার পোশাকের দাম বেশি তা বিশ্লেষণ কর।

প্রশ্নের উত্তর

কোনো সংখ্যা পদ্ধতিতে একটি সংখ্যা বোঝানোর জন্য সর্বমোট যতগুলো অঙ্ক ব্যবহার করতে হয় সেটি হচ্ছে সংখ্যাটির ভিত্তি বা বেজ।/ কোন সংখ্যা  পদ্ধতিতে যতটি সাংকেতিক চিহ্ন বা প্রতীক ব্যবহৃত হয় , তাকে ঐ সংখ্যা পদ্ধতির ভিত্তি বা বেজ বলে।

বহুল প্রচলিত ৪ বিট কোডটি হলো EBCDIC.EBCDIC এর পূর্ণ নাম Extended Binary Coded Decimal Interchange Code। এটি একটি ৪ বিট বিসিডি কোড। যে কোডে ০ থেকে 9 অঙ্কের জন্য 1111. A থেকে Z বর্ণের জন্য 1100 1101 3 1110 এবং বিশেষ চিহ্নের জন্য 0100, 0101, 0110 ও 0111 জোন বিট হিসেবে ব্যবহার করা হয় তাকে ইবিসিডিআইসি কোড বলে। এ কোডে 28 বা 256টি বর্ণ, সংখ্যা ও বিশেষ চিহ্নকে এ পদ্ধতিতে কোড হিসেবে কম্পিউটারে ব্যবহার উপযোগী করা আছে। এ কোডটি সাধারণত আইবিএম এবং এর সমকক্ষ কম্পিউটারে ব্যবহৃত হয়।

বিঃদ্রঃ এক্ষেত্রে তোমরা ASCII কোড এর উত্তর টাও লিখতে পারো। কারণ ASCII ও ৮ বিটের কোড।

গ এর উত্তরঃ নিজে করি
ঘ এর উত্তরঃ নিজে করি

আপডেট প্রশ্ন ও উত্তরঃ ০৯

৯। A, B ও C এর নিকট যথাক্রমে (1001000) 2, (67)10 ও (502)8 টাকা আছে। MY23

ক. সংখ্যা পদ্ধতি বলতে কী বুঝ?
খ. 4 বিটের কোডটি ব্যাখ্যা কর।
গ. A ও B -এর টাকার পার্থক্য যোগের মাধ্যমে নির্ণয় কর।
ঘ. A, B ও C-এর মধ্যে টাকার পার্থক্য 16 বেসে রূপান্তরপূর্বক ঊর্ধ্বক্রমে দেখাও।

প্রশ্নের উত্তর

ক) সংখ্যাকে প্রকাশ এবং গণনা করার পদ্ধতি হচ্ছে সংখ্যা পদ্ধতি ।/ দৈনন্দিন জীবনে কোন কিছু গননা করার জন্য কতগুলো সাঙ্কেতিক চিহ্ন ব্যাবহার করা হয় ,এই চিহ্নের মাধ্যমে সংখ্যাকে প্রকাশ এবং গণনা করার পদ্ধতিকে সংখ্যা পদ্ধতি বলে।

খ। 4 বিটের কোডটি হলো BCD কোড। BCD এর পূর্ণ নাম Binary Coded Decimal। দশমিক পদ্ধতির সংখ্যাকে বাইনারি সংখ্যায় প্রকাশের জন্য এ কোড ব্যবহার করা হয়। দশমিক সংখ্যা পদ্ধতির প্রতিটি অংককে সমতুল্য চার বিট বাইনারি সংখ্যা দ্বারা প্রকাশ করাকে বিসিডি কোড বলে। এ কোডের মাধ্যমে ‘0’ হতে 9 পর্যন্ত মোট 10টি সংখ্যাকে 4 বিট বাইনারি সংখ্যা দ্বারা নির্দেশ করা যায়।

গ এর উত্তরঃ নিজে করি
ঘ এর উত্তরঃ নিজে করি

আপডেট প্রশ্ন ও উত্তরঃ ১০

১০। বার্ষিক পরীক্ষায় ICT বিষয়ে রণি (1010101)2, রাফি (56)16 সাদিয়া (123)8 নাম্বার পায়। MAD23

ক. কোড কী?
খ. বাইনারি 1+1 ও বুলিয়ান 1+1 একই নয়— ব্যাখ্যা কর ।
গ. উদ্দীপকে রাফি ও সাদিয়া ICT বিষয়ে মোট কত নম্বর পেয়েছে তা বাইনারি পদ্ধতিতে নির্ণয় কর।
ঘ. উদ্দীপকে কে বেশি নম্বর পেয়েছে তা ডেসিমেল পদ্ধতিতে নির্ণয় কর।

প্রশ্নের উত্তর

ক) কম্পিউটারে বর্ণ, অক্ষর, শব্দ বা চিহ্নকে বাইনারিতে রূপান্তর করার প্রক্রিয়াই হচ্ছে কোড।/ যে প্রক্রিয়ার মাধ্যমে চিহ্ন, বর্ণ, অঙ্ক ,প্রতীক ,বিশেষ চিহ্ন কিংবা গানিতিক চিহ্নসমূহকে বাইনারিতে প্রকাশ করা হয় তাকে কোড বলে।

খ) বাইনারি যোগের ক্ষেত্রে 1 + 1 ব্যবহৃত হয়। এক্ষেত্রে 1+1=0 এবং ক্যারি 1 হয়। অর্থাৎ যোগফল হয় 10. বুলিয়ান যোগের ক্ষেত্রে 1 + 1 = 1 হয়। এতে বুঝা যাচ্ছে যে, বুলিয়ান যোগ (+) চিহ্ন সাধারণত + চিহ্নকে বুঝায় না। বুলিয়ান যোগকে বলা হয় Logical Addition অথবা Logical OR operation। এ থেকে বুঝায় যায় যে, বাইনারি 1 +1 ও বুলিয়ান 1+1 এক নয়।

গুরুত্বপূর্ণ আরো প্রশ্ন সাজেশন উত্তর সহ

অনুশীলন প্রশ্নঃ১ (উত্তরসহ)

ঝুমি ও রুমি টেস্ট পরীক্ষায় প্রাপ্ত মােট নম্বর যথাক্রমে (920)10 ও (920)8 । তাদের ক্লাস রােল যথাক্রমে (37)8 ও (3A)16

ক. বিসিডি কোড কী?
খ. বিশ্বের সকল ভাষাকে কোডভুক্ত করা সম্ভব হয়েছে—ব্যাখ্যা কর।
গ. উদ্দীপকে উল্লিখিত রােল নম্বর দুটিকে প্রচলিত সংখ্যায় রূপান্তর কর।
ঘ, ঝুমি রুমির প্রাপ্ত নম্বর দুটির পার্থক্য যােগের মাধ্যমে নিরূপণ করা সম্ভব কি-না? বিশ্লেষণ কর।

ক) একটি দশমিক সংখ্যার প্রত্যেকটি অঙ্ককে আলাদাভাবে চারটি বাইনারি বিট দিয়ে প্রকাশ করাই বিসিডি কোড।

খ) পৃথিবীর প্রায় সব ভাষার লেখালেখিকে একটি পদ্ধতিতে সমন্বিত করার কোড় হচ্ছে ইউনিকোড়। ইউনিকোড কনসর্টিয়াম নামে একটি সংগঠন এটি রক্ষণাবেক্ষণ করে থাকে। 2020 সালে ইউনিকোডের’ 13 সংস্করণে 154 টি ভাষা স্থান পেয়েছে। সর্বশেষ ইউনিকোডের Standard অনুযায়ী যেখানে প্রত্যেকটা বর্ণের জন্য 000016 থেকে শুরু করে 10FFFF16 এর ভেতর একটি সংখ্যা নির্দিষ্ট করে দেওয়া আছে। ইউনিকোডে প্রতিটি ভাষার জন্য 65,536 টি স্থান সংরক্ষণ করা আছে। প্রাচীন মিশরীয় হ্যারােলােগ্রাফিক ভাষা থেকে শুরু করে বর্তমানের ইমােজিকেও ইউনিকোডের আওতায় আনা হয়েছে। তাই বিশ্বের সকল ভাষাকে কোডভুক্ত করা সম্ভব হয়েছে।

গ) ঝুমির রােল নম্বর (37)8
এবং রুমির রােল নম্বর (3A)16 এ রােল নম্বর দুটিকে প্রচলিত সংখ্যা অর্থাৎ দশমিক সংখ্যায় রূপান্তর করা হলাে-

আইসিটি ৩য় অধ্যায় সৃজনশীল বোর্ড প্রশ্নোত্তর

(ঘ) ঝুমির টেস্ট পরীক্ষায় প্রাপ্ত নম্বর (920)10 এবং রুমির টেস্ট পরীক্ষায় প্রাপ্ত নম্বর (920)8 । কিন্তু অক্টাল সংখ্যা পদ্ধতির বেজ ৪ এবং এ সংখ্যা পদ্ধতিতে 0 – 7 পর্যন্ত সংখ্যাগুলাে ব্যবহৃত হয়। অর্থাৎ (920)8 সংখ্যাটি সঠিক নয়। তাই ঝুমি ও রুমির প্রাপ্ত নম্বর দুটির ও পার্থক্য যােগের মাধ্যমে নিরূপণ করা সম্ভব নয়।

অনুশীলন প্রশ্নঃ২ (উত্তরসহ)

রনি আইসিটি ক্লাসে বিভিন্ন সংখ্যা পদ্ধতি সম্পর্কে ধারণা লাভ করে।এ ধারণার ভিত্তিতে রনির বােনের বয়স (110101)2 এবং ভাইয়ের বয়স (53)8 বছর। রনি ও তার ভাই একই ব্রান্ডের ও একই মডেলের দুইটি স্কুল ব্যাগ যথাক্রমে (207)16 ও (510)10 টাকা দিয়ে ভিন্ন দোকান থেকে ক্রয় করে।

ক. Unicode কী?
খ, 1 + 1+1 = 1″ ব্যাখ্যা কর।
গ. উদ্দীপকের রনির ভাই ও বােনের বয়সের পার্থক্য যােগের মাধ্যমে নির্ণয় কর।
ঘ. তাদের স্কুল ব্যাগের মূল্য অক্টাল পদ্ধতিতে নির্ণয়পূর্বক মতামত দাও।

ক) Unicode হচ্ছে পৃথিবীর প্রায় সব ভাষার লেখালেখিকে একটি পদ্ধতিতে সমন্বিত করার কোড।

খ) 1 + 1 + 1 = 1 এটি একটি লজিক্যাল বা যৌক্তিক যোেগ যা OR(+) গেইট দ্বারা বাস্তবায়ন করা যায় । OR (+) গেইট ইনপুটগুলাের মধ্যে যে কোনাে একটি ইনপুটের মান 1 হলেই আউটপুট হয়।

তাই সেটি বিবেচনা করা হয় না। অর্থাৎ রনির ভাই ও বােনের বয়সের পার্থক্য যােগের মাধ্যমে হলাে (10)10 = (1010)2

ICT Number System

আইসিটি ৩য় অধ্যায় সৃজনশীল বোর্ড প্রশ্নোত্তর

অনুশীলন প্রশ্নঃ৩ (উত্তরসহ)

সুমি, সুমির বাবা ও মায়ের বয়স যথাক্রমে (10)16 ;(100)8 এবং (2F)16 বছর।

ক. বিসিডি কোড কী?
খ. “’2’র পরিপূরক করলে সংখ্যার শুধুমাত্র চিহ্নের পরিবর্তন হয়”- বুঝিয়ে লেখ।
গ. সুমির মায়ের বয়স অক্টাল সংখ্যায় রূপান্তর কর।
ঘ. সুমির বাবার বয়স সুমির বয়সের কত গুণ? বিশ্লেষণ কর।

ক) একটি দশমিক সংখ্যার প্রত্যেকটি অঙ্ককে আলাদাভাবে চারটি বাইনারি বিট দিয়ে প্রকাশ করাকে বিসিডি কোড বলে।

খ) 2 এর পরিপূরক করলে সংখ্যার শুধুমাত্র চিহ্নের পরিবর্তন হয়। ডিজিটাল বর্তনীতে সরল করে 2 এর পরিপূরক গঠনে চিহ্নযুক্ত সংখ্যা এবং চিহ্নবিহীন সংখ্যা যােগ করার জন্য একই বর্তনী ব্যবহার করা যায়। 2 এর পরিপূরকের উদ্দেশ্য হলাে ঋণাত্মক সংখ্যার বাইনারি মান বের করা। অর্থাৎ কোনাে সংখ্যার 2 এর পরিপূরক করলে যে মান পাওয়া যায় তা উহার ঋণাত্মক মানের সমান। তাই বলা যায়, 2 এর পরিপূরক করলে সংখ্যার শুধুমাত্র চিহ্নের পরিবর্তন হয়।

আইসিটি ৩য় অধ্যায় সৃজনশীল বোর্ড প্রশ্নোত্তর

অনুশীলন প্রশ্নঃ৪ (উত্তরসহ)

কৃষ্টি, পিয়াল ও মুক্তি সহপাঠীর বিবাহ উপলক্ষ্যে যথাক্রমে (5D7)16; (750)8 ও (999)10 টাকা দিয়ে উপহার সামগ্রী ক্রয় করল।

ক. ASCII কী?
খ, ২-এর পরিপূরক ডিজিটাল বর্তনীকে সরল করে ব্যাখ্যা কর।
গ. উদ্দীপকে উল্লিখিত কৃষ্টি ও মুক্তির উপহার সামগ্রীর মূল্য বাইনারিতে মােট কত হবে নির্ণয় কর।
ঘ, পিয়াল ও কৃষ্টির উপহার ক্রয়ের মূল্য যথাক্রমে হেক্সাডেসিমেল ও দশমিক সংখ্যায় নির্ণয় কর।

ক) ASCII হচ্ছে একটি আলফানিউমেরিক কোড় যার পূর্ণরূপ American Standard Code for Information Interchange.

খ) সাধারণভাবে কম্পিউটারের মাধ্যমে যােগ ও বিয়ােগের কাজ করতে হলে যােগের জন্য Adder Circuit এবং বিয়ােগের জন্য Subtractor Circut পৃথক পৃথকভাবে ব্যবহার করতে হয়। এতে করে ডিজিটাল বর্তনীর জটিলতা বাড়ে এবং সর্বোপরি মূল্য বৃদ্ধি পায়। এ সকল অসুবিধাসমূহ দূর করার জন্য ২’এর পরিপূরক ব্যবহার করা হয়। ফলে ডিজিটাল বর্তনীটি সরল হয়।

আইসিটি ৩য় অধ্যায় সৃজনশীল বোর্ড প্রশ্নোত্তর

অনুশীলন প্রশ্নঃ৫ (উত্তরসহ)

তাসকিন স্যার শ্রেণিকক্ষে ICT বিষয়ের সংখ্যা পদ্ধতি নিয়ে আলােচনা করছিলেন। ক্লাসের এক পর্যায়ে স্যার সােহেল রােহানকে জিজ্ঞেস করলেন তােমরা ১ম সাময়িক পরীক্ষায় ICT বিষয়ে কত নম্বর পেয়েছিলে? সােহেল বলল (105)8 এবং রােহান বলল (4F)16 পিছনে বসে থাকা মিতা বলল স্যার আমিতাে (100111)2 নম্বর পেয়েছি।

ক. বাইনারি সংখ্যা পদ্ধতি কী?
খ. 6+5+3 = 1110 হতে পারে- ব্যাখ্যা কর।
গ. মিতার প্রাপ্ত নম্বরটি দশমিকে রূপান্তর কর।
ঘ, সােহেল রােহান এর প্রাপ্ত নম্বরের মধ্যে পার্থক্য যােগের মাধ্যমে নির্ণয় করা যায় কি-না? বিশ্লেষণপূর্বক মতামত দাও।

ক) 0 এবং 1 এ দুটি চিহ্ন ব্যবহার করে গড়ে ওঠা সংখ্যা পদ্ধতিই বাইনারি সংখ্যা পদ্ধতি।

খ) 6+5+3 =1110, এখানে 6+5+3 = 14 যা একটি দশমিক, সংখ্যার যােগ। দশমিক সংখ্যা 14 এর বাইনারি 1110 হতে পারে। নিচে তা দেখানাে হলাে:

আইসিটি ৩য় অধ্যায় সৃজনশীল বোর্ড প্রশ্নোত্তর

ঘ সােহেল ও রােহান এর প্রাপ্ত নম্বরের মধ্যে পার্থক্য যােগের মাধ্যমে নির্ণয় করা যায়।
সােহেল (105)8 এবং রোহান (4F)16 নম্বর পেয়েছে। অর্থাৎ রােহান এর নম্বর বেশি হওয়ায় (4F)16 থেকে (105)8 নম্বরের পার্থক্য নির্ণয় করতে 2 এর পরিপূরক পদ্ধতিতে যােগ করতে হবে।
(4F)16 – (105)8 = (4F)16 + (-105)8 কে 2 এর পরিপূরক পদ্ধতিতে যােগের মাধ্যমে পার্থক্য নির্ণয় করতে হবে।
(4F)16 = (01001111)2
(105)8 = (001000101)2
(105)8 এর ৮বিট মান= (01000101)2
1এর পরিপূরক= 10111010
2 এর পরিপূরক= ( 10111010+1) 2 = 10111011 2
অতএব (-105)8 = 10111011 2
এখন, 4F)16 + (-105)8 = (01001111)2 + 10111011 2 = 100001010 (এখানে বামের অতিরিক্ত 1 বিবেচনায় আনা যাবেনা। কারণ ৮বিট রেজিষ্ট্রার দিয়ে ৯ বিট সংরক্ষণ করা যায়না।
সােহেল ও রােহান এর প্রাপ্ত নম্বরের মধ্যে পার্থক্য =( 00001010)2

অনুশীলন প্রশ্নঃ৬ (উত্তরসহ)

কলেজের আইসিটি শিক্ষক বাের্ডে (63)10 (63)8 এবং (63.8)16 সংখ্যাগুলাে লিখলেন এবং দ্বিতীয় ও তৃতীয় সংখ্যা দুটি যােগ করে দেখালেন। অতঃপর বললেন, “কম্পিউটারের অভ্যন্তরে সমস্ত গাণিতিক কাজ হয় একটি মাত্র অপারেশনের মাধ্যমে।

ক. ইউনিকোড কী?
খ, 9+7= 10 সম্ভব কি-না? ব্যাখ্যা কর।
গ. উদ্দীপকের দ্বিতীয় ও তৃতীয় সংখ্যা দুটির যােগফল বাইনারিতে প্রকাশ কর।
ঘ. উদ্দীপকে বর্ণিত অপারেশনের মাধ্যমে প্রথম দ্বিতীয় সংখ্যার পার্থক্য নির্ণয় করা সম্ভব বিশ্লেষণ করে দেখাও।

ক) ইউনিকোড হচ্ছে পৃথিবীর প্রায় সব ভাষার লেখালেখিকে একটি পদ্ধতিতে সমন্বিত করার কোড।

খ) 9 +7= 10 এটি একটি হেক্সাডেসিমেল সংখ্যা পদ্ধতির যােগ। দশমিক সংখ্যা পদ্ধতিতে 9 +7 = 16 হয়। কিন্তু হেক্সাডেসিমেল সংখ্যা পদ্ধতির যােগ করলে 10 হয়। হেক্সাডেসিমেল সংখ্যা পদ্ধতিতে 15 এর পরবর্তী সংখ্যা 10 যা দশমিক সংখ্যা পদ্ধতির সমতুল্য মান 16 ।

ঘ প্রদত্ত প্রথম সংখ্যাটি হচ্ছে (63)10 এবং দ্বিতীয় সংখ্যাটি হচ্ছে (63)8 . 2 এর পরিপূরকের মাধ্যমে কম্পিউটারের অভ্যন্তরে সমস্ত গাণিতিক কাজ হয়। নিচে প্রথম ও দ্বিতীয় সংখ্যার পার্থক্য 2′ এর পরিপূরকের মাধ্যমে বিশ্লেষণ করে দেখানাে হলাে

আইসিটি ৩য় অধ্যায় সৃজনশীল বোর্ড প্রশ্নোত্তর

অনুশীলন প্রশ্নঃ৭ (উত্তরসহ)

ICT শিক্ষক শ্রেণিতে সংখ্যা পদ্ধতি পড়াচ্ছিলেন। এক ছাত্রকে রােল নম্বর জিজ্ঞাসা করায় সে (375)10 উত্তর দিল । শিক্ষক ছাত্রের রােল নম্বরটিকে ৮টি মৌলিক চিহ্নবিশিষ্ট সংখ্যা পদ্ধতিতে রূপান্তর করে দেখালেন। ছাত্রটির গত বছরের রােল নম্বর (17C)16 জানতে পেরে শিক্ষক তার শেষ পরীক্ষার ফলাফল ভালাে হয়েছে মন্তব্য করলেন।

ক. অ্যাডার কী?
খ. একটি 4-বিট বাইনারি কাউন্টার কতটি সংখ্যা গুণতে পারে ব্যাখ্যা কর।
গ. শিক্ষকের প্রদর্শিত সংখ্যা পদ্ধতিতে বর্তমান রােল নম্বরটি রূপান্তর কর।
ঘ. যােগের মাধ্যমে রােল নম্বরদ্বয়ের পার্থক্য নির্ণয় করে শিক্ষকের মন্তব্য মূল্যায়ন কর।

ক) যে ডিজিটাল সার্কিটের মাধ্যমে বাইনারি সংখ্যা যােগ করা যায় তা হচ্ছে অ্যাডার।

খ) একটি কাউন্টার প্রথম ধাপ থেকে শুরু করে আবার প্রথম ধাপে ফিরে আসতে যতগুলাে ধাপ প্রয়ােজন হয় তাকে ঐ কাউন্টারের মােড নম্বর বলে। কাউন্টারে n টি ফ্লিপ ফ্লপ থাকলে তার মডিউলাস 2n টি হবে। সাধারণত একটি কাউন্টারের মােড নম্বর 2n । কাউন্টারে এটি ফ্লিপ ফ্লপ থাকলে তার মডিউলাস 24 =16টি হবে।

যােগফলের দশম বিটে [১] অঙ্কটি ওভারফ্লো হিসেবে চলে এসেছে। তাই সেটি বিবেচনা করা হয় না। অর্থাৎ ছাত্রটির বর্তমান রােল নম্বরদ্বয়ের পার্থক্য হচ্ছে 5 এবং শিক্ষক ছাত্রের শেষ পরীক্ষার ফলাফল ভালাে হয়েছে বলে যে মন্তব্য করেছেন তা সঠিক।

অনুশীলন প্রশ্নঃ৮ (উত্তরসহ)

X=(36.75)10
Y= (59.F)16
P=(57)8
Q= (30)10
দৃশ্যকল্প-ক দৃশ্যকল্প-খ
ICT Number System

ক. ইউনিকোড কী?
খ. ডিজিটাল ডিভাইসে ব্যবহৃত সংখ্যা পদ্ধতি ব্যাখ্যা কর।
গ. দৃশ্যকল্প-ক এর X ও Y এর মানকে বাইনারিতে যােগ কর।
ঘ, দৃশ্যকল্প-খ এ উল্লিখিত P ও Q এর মধ্যে ব্যবধান ২ এর পরিপূরক পদ্ধতি ব্যবহার করে নির্ণয় কর।

ক) ইউনিকোড হচ্ছে পৃথিবীর প্রায় সব ভাষার লেখালেখিকে একটি পদ্ধতিতে সমন্বিত করার কোড।

খ) ডিজিটাল ডিভাইসে ব্যবহৃত সংখ্যা পদ্ধতি হলাে বাইনারি সংখ্যা পদ্ধতি। যে সংখ্যা পদ্ধতিতে দুটি অঙ্ক বা চিহ্ন (0, 1) ব্যবহার করা হয় তাকে বাইনারি সংখ্যা পদ্ধতি বলে। বাইনারি সংখ্যা পদ্ধতি হলাে সরলতম গণনা পদ্ধতি। এ পদ্ধতির ডিজিট দুটিকে সহজে ইলেকট্রনিক উপায়ে নির্দিষ্ট করা সম্ভব হয়েছে বলে কম্পিউটারসহ অনেক ইলেকট্রনিক যন্ত্রে এ পদ্ধতি ব্যবহৃত হয়।

সংখ্যাপদ্ধতি ও ডিজিটাল ডিভাইস <a href=
আইসিটি ৩য় অধ্যায় সৃজনশীল বোর্ড প্রশ্নোত্তর

আইসিটি ৩য় অধ্যায় সৃজনশীল বোর্ড প্রশ্নোত্তর ঃ সংখ্যাপদ্ধতি ও ডিজিটাল ডিভাইস সৃজনশীল বোর্ড প্রশ্ন ও উত্তর সমূহ দেওয়া হয়েছে। So follow it for your better preparation and acheivement. go on.

ICT Number System

Comments

No comments yet. Why don’t you start the discussion?

Leave a Reply