Plant pathology suggestion(রোগতত্ত্ব সাজেশন) উদ্ভিদ রোগতত্ত্ব

Plant pathology suggestion(রোগতত্ত্ব সাজেশন) উদ্ভিদ রোগতত্ত্ব টি অনার্স ১ম বর্ষ উদ্ভিদবিজ্ঞান ও মাস্টার্সের জন্য অধিক কার্যকর হবে।

অনুশীলনী-৯
ক-বিভাগ : অতি সংক্ষিপ্ত কুইজ প্রশ্ন ও উত্তরসমূহ

ক বিভাগ

১। উদ্ভিদ রােগবিজ্ঞান বা Plantpathology-এর সংজ্ঞা দাও।
উদ্ভিদবিজ্ঞানের যে শাখায় উদ্ভিদের রােগ সম্বন্ধে আলােচনা করা হয় তাকে উদ্ভিদ রােগবিজ্ঞান বা Plantpathology বলে।

২। Plantpathology বা Phytopathology শব্দটি কিভাবে এসেছে?
Phytopathology শব্দটি তিনটি গ্রিক শব্দ যথা : Phyton, pathos ও logos সমন্বয়ে গঠিত। গ্রিক ভাষায় Phyton অর্থ উদ্ভিদ, Pathos অর্থ দুঃখ বা রােগ এবং Logos অর্থ বিজ্ঞান।

৩। Antony van Leuwenhook কি আবিষ্কার করেন?
Microscope ১৬৭৫ সালে এবং Bacteria আবিষ্কার করেন।

প্রশ্ন-৪ : Bacteriology & Protozoology-এর জনক কে?
Antony van Leuwenhook.

৫। ছত্রাকতত্ত্বের জনক কে?
Pier Antonieo Micheli-কে ছত্রাক তত্ত্বের জনক বলা হয়।

৬। Micheli ছত্রাককে কয়ভাগে বিভক্ত করেন কী কী ?
উত্তর : Micheli ছত্রাককে চার ভাগে বিভক্ত করেন। যথা- (i) Agaricaceae; (ii) Polyporaceae; (ii) Claveriaceae; (iv) Lycoperdaceae

৭। আধুনিক রােগতত্ত্বের জনক কে ?
Anton de Bary (A.D Bary) কে আধুনিক রােগতত্ত্বের জনক বলা হয়।

৮। Bordew mixture নামক Fungicide কে আবিষ্কার করেন ?
উত্তর : Prof. Millardet.

৯: E.C. Stakrian & J.G. Harrare (1967)-এর মতে রােগ কী ?
উত্তর : গাছের রােগ বলতে বােঝায় স্বাভাবিক বৃদ্ধি ও গঠন থেকে এমন ধরনের বিকৃতি, যা রােগের লক্ষণ হিসেবে গণ্য হবার পক্ষে যথেষ্ট ও স্থায়ী ধরনের এবং যা উৎপাদিত ফসলের গুণগত মান হ্রাস করে ফলে ফলনের মূল্য কমে যায়।

প্রশ্ন-১০ : Agrios এর মতে রােগ কী?
একটি পরিবেশেগত প্রভাবক বা একটি রােগজীবাণু ঘটিত যে কোন প্রকার বিশৃঙ্খলা যা উদ্ভিদে পানি, খনিজ, পুষ্টি খাদ্যের সদ্ব্যবহার সংশ্লেষ ও সংবহনে এমন প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করে যার ফলে একই প্রজাতিভুক্ত স্বাভাবিক এবং স্বাস্থ্যকর উদ্ভিদের তুলনায় আক্রান্ত উদ্ভিদের বাহ্যিক পরিবর্তন ও ফলন হ্রাস পেলে তাকেই উদ্ভিদ রােগ বলে।

বোটানিঃ Plant pathology suggestion(রোগতত্ত্ব সাজেশন) উদ্ভিদ রোগতত্ত্ব

ক বিভাগ

প্রশ্ন-১১ : উদ্ভিদ রােগ কী ?
: উদ্ভিদ দেহের কোন অংশের স্বাভাবিক অবস্থার কোন পরিবর্তন বা অত্যাবশ্যকীয় বিপাক কার্যের বিপর্যয় বা আঘাতের ফলে বা বাহ্যিক লক্ষণ প্রকাশ পায় তাকে উদ্ভিদ রােগ বলে।

প্রশ্ন-১২ : উদ্ভিদদেহে রােগের কারণ কী?
উদ্ভিদদেহে রােগ যে সব কারণে হয় সেগুলােকে প্রাথমিক পর্যায়ে তিনভাগে ভাগ করা যায়। যথা :(i) জীবীয় কারণ (Biotic); (ii) অজীবীয় কারণ (Abiotic); (ii) ভাইরাস (Virus)

উদ্ভিদবিজ্ঞান-১ (নন-মেজর)

প্রশ্ন-১৩ : উদ্ভিদ রােগ সৃষ্টিকারী জীবীয় কারণগুলাে কী কী?
উত্তর : ছত্রাক, ব্যাকটেরিয়া, শৈবাল সপুষ্পক উদ্ভিদ নেমাটোড ও মাইকোপ্লাজমা ইত্যাদি।

প্রশ্ন-১৪ : নাইট্রোজেন, ফসফরাস ও পটাশিয়াম বা N.P.K-এর অভাবে গাছে কি ধরনের পরিবর্তন ঘটে?
উত্তর : N2 এর অভাবে গাছের পাতা প্রথমে হলুদ ও পরবর্তীতে বাদামি বর্ণ ধারণ করে। P এর অভাবে গাছ বামনাকৃতির হয়, পাতা পীতাভ বর্ণ ধারণ করে। K এর অভাবে পাতার ধার তামাটে বর্ণের হয়, পাতায় ফুট ফুট দাগ পড়ে এবং পাতার আগা মরে যায়।

প্রশ্ন-১৫ : Systemic disease কী ?
উদ্ভিদ দেহের সমস্ত অংশ রােগাক্রান্ত হলে তাকে Systemic disease বলে।

প্রশ্ন-১৬ : Localised disease কী ?
উত্তর : উদ্ভিদ দেহের কোন বিশেষ অংশ রােগক্রান্ত হলে তাকে Localised disease বলে ।

প্রশ্ন-১৭ : Diagnosis বা রােগ সনাক্তকরণ কাকে বলে?
সাধারণত Diagnosis হচ্ছে বিভিন্ন পরীক্ষা-নিরীক্ষা ও উপসর্গ দেখে রােগের কারণ তথা কোন Pathogen দ্বারা রােগ সংঘটিত হয়েছে তা নিরূপণ করা।

প্রশ্ন-১৮; সংক্রামক রােগ কাকে বলে?
ছত্রাক, ব্যাকটেরিয়া, পরজীবী, সপুষ্পক উদ্ভিদ, নেমাটোড, ভাইরাস, Mycoplasma, Protozoa প্রভৃতি Pathogen দিয়ে উদ্ভিদ রােগসমূহের ক্ষেত্রে রােগাক্রান্ত উদ্ভিদের উপর, অধিকাংশ ক্ষেত্রে আক্রান্ত উদ্ভিদ কলার অভ্যন্তরে এস Pathogen বিদ্যমান থেকে যে সকল রােগ সৃষ্টি করে তাকে সংক্রামক রােগ বলে।

প্রশ্ন-১৯ ; অসংক্রামক রােগ কাকে বলে?
আক্রান্ত উদ্ভিদ থেকে Culture করে বা Transmitted করে যদি কোন Pathogen না পাওয়া যায়, তবে ধারণা করতে হবে যে রােগটি কোন পর্ব পরিবেশীয় প্রভাবক দিয়ে সংঘটিত হয়েছে। অর্থাৎ, কোন Pathogen দ্বারা রােগ সৃষ্টি না হয়ে কোন পরিবেশীয় প্রভাবক দ্বারা সৃষ্টি হলে তাকে অসংক্রামক রােগ বলে।

প্রশ্ন-২০ : কত সালে Henle পরজীবী জীবাণুজনিত রােগ অনুসন্ধান সম্পর্কে কতকগুলাে মৌলিক নীতি ঘােষণা করেন?
১৮৪০ সালে।

প্রশ্ন-২১ : কাদের ক্ষেত্রে Koch’s postulates প্রযােজ্য নয়?
উত্তর : যাদেরকে সুস্থ উদ্ভিদে Re-introduced করে disease reproduce করা যায় না এবং obligate parasite-এর ক্ষেত্রে Koch’s postulate প্রযােজ্য নয়।

প্রশ্ন-২২ : ছত্রাক জনিত উদ্ভিদ রােগ সনাক্তকরণের জন্য কি কি পদ্ধতি ব্যবহার করা হয়?
উত্তর : ২টি পদ্ধতি ব্যবহার করা হয়। যথা : ১। Macroscopic study (চাক্ষুষ পর্যবেক্ষণ); ২। Microscopic study (আণুবীক্ষণিক পর্যবেক্ষণ)

প্রশ্ন-২৩: Symptom বা রােগ লক্ষণ কাকে বলে?
উত্তর বিভিন্ন প্রকারের Pathogen বা প্রতিকূল পরিবেশের প্রভাবে উদ্ভিদদেহের বিভিন্ন অংশে যে বিকৃতি বা অস্বাভাবিক অবস্থা দেখা দেয় তাকে Symptom বা রােগলক্ষণ বলে।

প্রশ্ন-২৪ : রোগ লক্ষণসমূহকে কয়ভাগে ভাগ করা যায়?
উত্তর : ৩ ভাগে ভাগ করা যায়। যথা : ১। Necrotic; ২। Hypoplastic; ৩। Hyperplastic

উদ্ভিদবিজ্ঞানঃ Plant pathology suggestion(রোগতত্ত্ব সাজেশন) উদ্ভিদ রোগতত্ত্ব

ক বিভাগ

প্রশ্ন-২৫ : Necrotic কি?
রােগের দরুন গাছের আক্রান্ত স্থানের মৃত কলা পঁচে বাদামি রং ধারণ করাকে Necrotic বলে।

প্রশ্ন-২৬: Canker কি?
ছত্রাক, ব্যাকটেরিয়ার আক্রমণে গাছের বাকল পঁচে গিয়ে কাণ্ডের ভেতরের কাঠ বেরিয়ে আসে এবং ক্ষতের চারপাশে ক্যালাস কলা উৎপন্ন হয়ে সে অংশে উঁচু হয়ে উঠে একে Canker বলে। যেমন- Xanthormonas citri লেবুর Canker রােগ সৃষ্টি করে।

প্রশ্ন-২৭: Scab কি?
ত্বক ফেটে মামরির মত হওয়া বা ত্বক খস খসে হওয়াকে Scab রােগ বলে। যেমন-Streptomyces দ্বারা আলুর এ রােগ হয়।

প্রশ্ন-২৮ : Die-back কি?
উত্তর জীবাণুর আক্রমণে গাছের শাখা-প্রশাখা আগা থেকে শুকিয়ে নিচের দিকে যাওয়াকে Dic-back বলে। যেমন- Colletotrichum-এর আক্রমণে লেবু ও মরিচ গাছে এ রােগ হয়।

প্রশ্ন-২১ : Damping off কি?
উত্তর : বীজতলার দ্বারা গাছে মাটি সংলগ্ন স্থানে কাণ্ডের কোষগুলাে নরম হয়ে গিয়ে সামান্য বাতাসে গাছে ঢলে পড়ে একে Damping off বলে। যেমন- Pythium এর আক্রমণে এ রােগ হয়।

প্রশ্ন-৩০ : Rotting কি?
ছত্রাক ও ব্যাকটেরিয়ার আক্রমণে কোষ পঁচে নষ্ট হয়ে যাওয়াকে Rotting বলে। যেমন-Erwinia দ্বারা আলুর কাণ্ড নরম পচা হয়।

প্রশ্ন-৩১: Shot hole কি?
উত্তর : কচি অবস্থায় উদ্ভিদের পাতা পরজীবী দ্বারা আক্রান্ত হলে আক্রান্ত স্থান বাদামি রং ধারণ করে এবং পরবর্তীতে উক্ত স্থানের মৃত কোষ খসে পড়ে ছিদ্রের সৃষ্টি হলে তাকে Shot hole বলে।

প্রশ্ন-৩২ : Blight কি?
ছত্রাক ও ব্যাকটেরিয়ার আক্রমণে এদের নি:সৃত বিষাক্ত পদার্থের (toxin) ক্রিয়ার ফলে আক্রান্ত অংশের দ্রুত মৃত্যু হয়ে গাছের পাতা আগুনে ঝলসানাের মত গোঁড়া দাগ পড়ে একে Blight বলে। যেমন- Pseudomonas দ্বারা তামাকের Blight রােগ হয়।

প্রশ্ন-৩৩; Gummosis কি?
উত্তর : আক্রান্ত গাছের ক্ষতস্থান হতে আঠা নির্গত হলে তাকে Gummosis বলে। যেমন-Xanthomonas sp আখের Gummonsis রােগ সৃষ্টি করে।

প্রশ্ন-৩৪ : Wilting কি?
গাছের কাণ্ড ও শিকড় রােগাক্রান্ত হওয়ার ফলে অনেক সময় গাছের পাতা ও ডালপালা নরম হয়ে ঝুলে পড়ে একে Wilting বলে। যেমন— টমেটো গাছের ঢলে পড়া রােগ।

প্রশ্ন-৩৫ : Mosaic কি?
যখন গাছের পাতায় গাঢ় সবুজ ও হালকা সবুজ অবতল পাশাপাশি থাকে তখন তাকে Mosaic বলে।
যেমন— TMV তামাকের Mosaic রােগ সৃষ্টি করে।

অনার্সঃ Plant pathology suggestion(রোগতত্ত্ব সাজেশন) উদ্ভিদ রোগতত্ত্ব

ক বিভাগ

উদ্ভিদবিজ্ঞান-১ (নন-মেজর) )

প্রশ্ন-৩৬ : Chlorosis কি?
পাতার Chloropsis এর স্বাভাবিক রং হারিয়ে পাতা হলুদাভ সবুজ বর্ণ হলুদ হয়ে যাওয়াকে Chlorosis বলে ।

প্রশ্ন-৩৭ : Gall কি?
উত্তর : গাছের আক্রান্ত অংশে কোষ দ্রুত বিভাজন ঘটে অথবা কোষ অস্বাভাবিকভাবে বৃদ্ধি পেয়ে অর্বুদের ন্যায় সৃষ্টি হয় একে Gall রােগ বলে। যেমন : Agrobacterium sp.

প্রশ্ন-৩৮ : উদ্ভিদ রােগের পূর্বাভাস বলতে কি বুঝ?
উত্তর উদ্ভিদ রােগের পূর্বাভাস বলতে বুঝায় কোন অঞ্চল বা এলাকার কোন রােগের প্রাদুর্ভাব সম্পর্কে পূর্ব থেকে অবগত হওয়া।

প্রশ্ন-৩৯ : রােগের পূর্বাভাস জ্ঞাপন প্রধানত কয়টি উপাদানের উপর নির্ভরশীল?
উত্তর : রােগের পূর্বাভাস জ্ঞাপন প্রধানত চারটি উপাদানের উপর নির্ভরশীল । যথা :১। রােগ উৎপাদক বা প্যাথােজেন; ২। পােষক গাছ; ৩। আবহাওয়া ও; ৪। সময়

প্রশ্ন-৪০ : মহামারির কার্যকর পূর্বাভাস প্রদানের জন্য কি কি শর্তসমূহ পূরণ করা উচিত?
(i) অর্থকরী শস্য ও খাদ্যশস্যের ৩থাৎ, যাদের বাজার দর উঁচু একমাত্র তাদের ক্ষেত্রে পূর্বাভাসের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয় ।
(ii) যে রােগের জন্য পরিমিত ব্যয়সাপেক্ষ ও কার্যকর রােগ নিয়ন্ত্রণ পদ্ধতি জানা আছে সেখানেই পূর্বাভাস
প্রদান করা হয়।
(iii) পূর্বাভাস প্রদানের নির্ভরযােগ্য ও দ্রুত ব্যবস্থা থাকতে হবে। যেমন : রেডিও, টেলিভিশন ইত্যাদি।
(iv) মহামারির পূর্বাভাস প্রদান শুরু করতে হলে রােগ বৃদ্ধির সাথে জড়িত উপাদানসমূহের যে সব তথ্য থাকা দরকার তা পূর্ব পর্যবেক্ষিত ও পরীক্ষিত হতে হবে ।

প্রশ্ন-৪১ : পূর্বাভাস জ্ঞাপন পদ্ধতি কত প্রকার?
উত্তর : পূর্বাভাস জ্ঞাপন পদ্ধতি দুই প্রকার। যথা : ১। গবেষণামূলক পদ্ধতি; ২। ভিত্তিমূলক পদ্ধতি।

প্রশ্ন-৪২ : গবেষণামূলক পদ্ধতি কাকে বলে?
উত্তর : যে পদ্ধতিতে কোন নির্দিষ্ট সময়ে একই স্থানে বা পার্শ্ববর্তী স্থানে রােগ চক্রের ঘটনার উপর আবহাওয়া ও রােগের বিভিন্ন তথ্য পর্যালােচনা করে বিশেষ বিশেষ আবহাওয়ার উপর রােগের প্রাদুর্ভাব ও প্রচণ্ডতা নিরূপণ করে একটি আবহাওয়া মডেল তৈরি করা হয় এবং এই প্রাপ্ত তথ্যের উপর ভিত্তি করে রােগের পূর্বাভাস প্রদান করা হয় উক্ত পদ্ধতিকে গবেষণামূলক পদ্ধতি বলে।

উদ্ভিদবিজ্ঞানঃ Plant pathology suggestion(রোগতত্ত্ব সাজেশন) উদ্ভিদ রোগতত্ত্ব

ক বিভাগ

প্রশ্ন-৪৩ : ভিত্তিমূক পদ্ধতি কাকে বলে?
যে পদ্ধতিতে প্রথমে গবেষণাগারে কৃত্রিম উপায়ে নিয়ন্ত্রিত পরিবেশ বিভিন্ন উপাদান কিভাবে প্যাথােজেনকে যে প্রভাবিত করে আক্রমণের সূচনা করে সে সম্বন্ধে বিস্তারিত তথ্য নিয়ে আবহাওয়া মডেল তৈরি করা হয় এবং বিভিন্ন পরীক্ষা-নিরীক্ষার ফলে মহামারির পক্ষে অনুকূল আবহাওয়ার সাথে আবহাওয়া মডেলের মিল দেখে যদি মনে করা হয় মহামারির সূচনার ইঙ্গিত দিচ্ছে তখন পূর্বাভাসের ব্যবস্থা করা হয়, উক্ত পদ্ধতিকে ভিত্তিমূলক পদ্ধতি বলে।

প্রশ্ন-৪৪ : পূর্বাভাস প্রদানের উপকারিতা কি?
পূর্বাভাসের বিভিন্ন উপকারিতা রয়েছে। যেমন-
১। ফসলকে বিরাট ক্ষতির হাত থেকে রক্ষা করার জন্য ব্যবস্থা নেয়া যায়।
২। পূর্বাভাস সঠিক সময়ে জানলে অন্য জাতের ফসলের চাষ করা যায়।
৩। মহামারি না হলে অনর্থক খরচের ঝুঁকি নিতে হয় না।

প্রশ্ন-৪৫ : উদ্ভিদ রােগ ব্যবস্থাপনা নীতি বলত কি বুঝ?
উপযুক্ত সময়ে গাছের রােগ নিয়ন্ত্রণ করে গাছের ফলন বাড়নােকে উদ্ভিদ রোগ ব্যবস্থাপনা নীতি বলে।

প্রশ্ন-৪৬ : উদ্ভিদ রােগ নিয়ন্ত্রণে কি কি বিষয়ের উপর জ্ঞান থাকা দরকার?
উদ্ভিদ রােগ নিয়ন্ত্রণে যে সব বিষয়ের উপর জ্ঞান থাকা প্রয়ােজন সেগুলাে হলাে-
১। উদ্ভিদ ও পরজীবীর জীবনচক্র
২। পরজীবীর উপর পরিবেশ ও আবাহওয়ার প্রভাব।
৩। উদ্ভিদের উপর পরিবেশ ও আবহাওয়ার প্রভাব।
৪। রােগ নিয়ন্ত্রণ খরচ।
৫। আক্রান্ত উদ্ভিদের পরিচর্যা।

প্রশ্ন-৪৭ : উদ্ভিদ রােগ দমনে ব্যবস্থাপনাগুলােকে কয়টি শ্রেণীতে বিভক্ত করা হয়েছে?
উত্তর : উদ্ভিদ রােগ দমনে ব্যবস্থাপনাগুলােকে প্রধানত তিনটি শ্রেণীতে ভাগ করা যায়।1 Prophylaxis; ২। Therapy; ৩। Immunization,niin

উদ্ভিদঃ Plant pathology suggestion(রোগতত্ত্ব সাজেশন) উদ্ভিদ রোগতত্ত্ব

ক বিভাগ

প্রশ্ন-৪৮ : Prophylaxis কাকে বলে?
রােগের কারণকে এড়িয়ে রােগ নিয়ন্ত্রণ করাকে Prophylaxis বলে। এটি দু’প্রকার- ১। বর্জন, ২। নির্মূলীকরণ।

প্রশ্ন-৪৯: Therapy কাকে বলে?
উদ্ভিদ রােগ সংক্রমণ ঘটার পর তার দেহস্থিত পরজীবী ধ্বংস করে গাছকে নিরাময় করে তােলাকেই therapy বলে।

প্রশ্ন-৫০ Immunization কাকে বলে?
উত্তর : গাছের রােগ প্রতিরােধী ক্ষমতার উন্নতি সাধন করে রােগ নিয়ন্ত্রণ করাকে immunization বলে।

প্রশ্ন-৫: Plant quarantine কাকে বলে?
উত্তর : অসংখ্য উদ্ভিদ রােগ সৃষ্টিকারী Pathoger) একদেশ থেকে অন্য দেশে অজ্ঞাতসারে প্রবেশ করে বিস্তার লাভ করে। প্রথমদিকে এ সকল আমদানিকৃত Pathogen-কে খুঁজে বের করা যায় না। কিন্তু পরবর্তীকালে তারা যখন রােগ সৃষ্টি করে তখন উপলব্ধি করা যায়। এ প্রকার বিপজ্জনক অবস্থা প্রতিহত করার জন্য যে আইন প্রণয়ন করা হয়েছে তাকে Plant quarantine বলে।

প্রশ্ন-৫২ : Quarantine আইনের অসুবিধা কি?
উত্তর ১। দেশের ভৌগােলিক সীমারেখা রােগজীবাণুর কাছে বাঁধা নয়। এ সীমারেখায় যে কোন স্থান দিয়ে জীবাণুর অনুপ্রবেশ ঘটতে পারে। কিন্তু সংগরােধ আইন ভৌগােলিক সীমারেখার কেবল কিছু কিছু নির্দিষ্ট স্থানে প্রয়ােগ হয়। মানুষ সচেতনভাবে অনেক রােগ জীবাণু এস্থান থেকে অন্যস্থানে বয়ে এনে আইন ভঙ্গ করে। দেশের অর্থনীতির তাগিদে বা খাদ্যশস্য আমদানি করতে হয়। আর সংগরাধ তার পথে বাধাস্বরূপ অনেক সময় সংগরােধ আইনের অপ্রয়ােগ শস্য চলাচলে বাধা সৃষ্টি করে।

ক বিভাগ

উদ্ভিদবিজ্ঞান-১ (নন-মেজর)ঃ Plant pathology suggestion(রোগতত্ত্ব সাজেশন) উদ্ভিদ রোগতত্ত্ব

প্রশ্ন-৫৩ : Quarantine আইনের সুবিধা কি?
১। দেশের কৃষির জন্য ক্ষতিকারক রােগজীবাণু দীর্ঘদিন আসতে না পারায় সরকার ও বিজ্ঞানীরা স্বস্তির নি:শ্বাস ফেলার সময় পান এবং সেসব শত্রু সম্পর্কে অন্যদেশের গবেষণালব্ধ ফল নিজে দেশের প্রয়ােজনে প্রয়ােগ করতে পারেন।

২। এ আইন প্রয়ােগের ফলে জীবাণু দেশে দেশে ছড়িয়ে না পড়ে একই দেশে কিংবা একই অঞ্চলে সীমাবদ্ধ আছে। যেমন : দার্জিলিং থেকে আলু অন্য কোথাও বীজ হিসেবে ব্যবহার করা হয় না। কারণ দার্জিলিং-এর আলুতে ওয়ার্ট রােগ আছে।

প্রশ্ন-৫৪: রােগ দমনে ভৌত পদ্ধতিগুলাে কি কি?
(1) Control of disease through heat treatment :
(a) উত্তাপ দ্বারা মৃত্তিকা নির্জীব করা।
(b) গরম পানির দ্বারা জননে অংশগ্রহণকারী অঙ্গগুলাে শােধন।
(c) উত্তাপ প্রয়ােগে দেহ হতে ভাইরাসের দূরীকরণ ।
(d) গুদাম ঘরে সঞ্চিত উদ্ভিদ অঙ্গগুলােকে গরম বাতাস দ্বারা শােধন।
(2) Disease control by refrigeration.
(3) Disease control by radiation.

প্রশ্ন-৫৫: Sanitation কাকে বলে?
উত্ত : উদ্ভিদ দেহে জমিতে বা পণ্যাগারে বিদ্যমান ইনকুলামের পরিমাণ হ্রাস বা নির্মূলকরণ এবং অন্যান্য উদ্ভিদ দেহে প্যাথােজেনের বিস্তার হ্রাস করাকেই Sanitation বলে ।

প্রশ্ন-৫৬ : Crop rotation (শস্যাবর্তন) কাকে বলে?
উত্তর : এক জাতের শস্যের পর অন্য জাতের শস্যের চাষ করার প্রক্রিয়াকে শস্যাবর্তন বলে ।

প্রশ্ন-৫৭ : Soil treatment কাকে বলে?
উত্তর : যে মৃত্তিকায় বিভিন্ন উদ্ভিদ রােপণ করা হয় যে মৃত্তিকায় বর্তমান ছত্রাক ব্যাকটেরিয়া ও নেমাটোডদের জন্য উদ্বায়ী রাসায়নিক পদার্থের বাষ্প বা ধােয়া প্রয়ােগ করে মৃত্তিকা শশাধন করাকে Soil treatment বলে।

ক বিভাগ

প্রশ্ন-৫৮ Control through trap crop plants কাকে বলে?
উত্তর : অন্য কোন পােষক ব্যবহার করে প্রধান শস্যকে রােগের আক্রমণ থেকে রক্ষার প্রচেষ্টাকে Control through trap plants বলে।

প্রশ্ন-৫৯ : Immunization কাকে বলে?
উত্তর : যেসব গাছে কম রােগ হয় তা বাছাই করে তার অনাক্রমতা গুণসম্পন্ন অন্য নির্বাচিত জাতের সৃষ্টি করাকে Immunization বলে।

প্রশ্ন-৬০ : বীজ শােধন কাকে বলে?
বীজকে বিভিন্ন উপায়ে রােগ মুক্ত করাকে বীজ শােধন বলে। যেমন- গরম পানিতে শােধন, মুক্ত তাপে শোেধন, ওয়েট ট্রিটমেন্ট।

প্রশ্ন-৬১ ; বীজ শোধনের কয়েকটি ভৌত পদ্ধতি কি কি?
উত্তর : ১। গরম পানিতে শােধন; ২। অবায়বীয় পানি শােধন; ৩। মুক্ত তাপে শােধন

৪। সৌর তাপে শােধন; ৫। বায়বীয় বাষ্পীয় শােধন
রাসায়নিক পদ্ধতিতে বীজ শােধন : ১। স্টীপ ট্রিটমেন্ট; ২। স্প্রিংকেল টিট্রমেন্ট

প্লন্ট প্যাথােলজিঃ Plant pathology suggestion(রোগতত্ত্ব সাজেশন) উদ্ভিদ রোগতত্ত্ব

প্রশ্ন-৬২ : প্যাথােজেন কি?
যে সব জীব পােষকে অবস্থান করে, সেখান থেকে খাদ্য গ্রহণ করে বেঁচে থাকে এবং সেই পােষকেই রােগ সৃষ্টি করে তাকে প্যাথােজেন বলে।

প্রশ্ন-৬৩। প্যাথােজেনেসিটি কি?
পােষকদেহে প্যাথােজেনের রােগ সৃষ্টি করার ক্ষমতাকে বলা হয় প্যাথােজেনেসিটি

প্রশ্ন-৬৪ ; প্যাথােজেনেসিস কি?
পােষকদেহে প্যাথােজেনের রােগ সৃষ্টি করার পদ্ধতিকে বা প্যাথােজেনেসিটির পদ্ধতিকে বলা হয় প্যাথােজেনেসিস।

প্রশ্ন-৬৫ : পােষক কি?
উত্তর যে জীবটি পরজীবীকে আশ্রয় দান করে ও খাদ্যদান করে তাই হচ্ছে পােষক।

প্রশ্ন-৬৬ : বিকল্প পােষক কি?
উত্তর : যদি জীবনচক্র সম্পন্ন করতে একাধিক পােষকের প্রয়ােজন হয় তবে অন্য পােষকটিকে বলে বিকল্প পোষক।

প্রশ্ন-৬৭ : একটি বিকল্প পােষকের নাম লিখ।
উত্তর ; বারবেরি গাছ।

প্রশ্ন-৬৮ : পরজীবী কি?
উত্তর : যখন কোন জীব সজীব উদ্ভিদ বা প্রাণিদেহে জন্মে এবং ঐ সকল পােষক দেহের সজীব কলা হতে খাদ্য গ্রহণের মাধ্যমে পুষ্টি সম্পন্ন করে তাই পরজীবী।

প্রশ্ন-৬৯ ; পরজীবিতা কি?
উত্তর ; পােষক দেহ হতে পরজীবীর একতরফা সুবিধা ভােগের প্রক্রিয়াকে পরজীবিতা বলে।

প্রশ্ন-৭০ : ইনােকুলাম কি?
প্যাথােজেনের যে অংশ পােষকের সংস্পর্শে এসে রােগ সৃষ্টি করে সেই অংশকে বলা হয় ইনােকুলাম।

ক বিভাগ

প্রশ্ন-৭১ : ইননাকুলেশন কি?
উত্তর : যে প্রক্রিয়ায় প্যাথােজেন বা প্যাথােজেন জনন এককগুলাে পােষক উদ্ভিদের সংস্পর্শে আসে সে প্রক্রিয়াকে ইনােকুলেশন বলে।

প্রশ্ন-৭২ : ব্যাকটেরিয়ার ক্ষেত্রে কোন অংশ ইনােকুলাম হিসেবে ব্যবহৃত হয়?
Bacterid-এর কোষ।

প্রশ্ন-৭৩ : ছত্রাকের ক্ষেত্রে কোন অংশ ইনােকুলাম হিসেবে ব্যবহৃত হয়?
উত্তর : স্পাের, কনিডিয়া, মাইসেলিয়াম, রাইজোম ইত্যাদি।

প্রশ্ন-৭৪ : ভাইরাসের ক্ষেত্রে কোন অংশ ইনােকুলাম হিসেবে ব্যবহৃত হয়?
উত্তর : শুধু নিউক্লিক এসিডটি।

প্রশ্ন-৭৫ : Inoculum Potential কি?
উত্তর : গাছের প্রতিরােধ ক্ষমতাকে অতিক্রম করে ইনােকুলামের রােগ সৃষ্টি ক্ষমতাকে Inoculum potential বলে।

প্রশ্ন-৭৬ : পেনিট্রেশন কি?
রােগ উৎপাদনের জন্য ইনােকুলাম পােষকের সংস্পর্শে এসে পােষক কলায় প্রবেশ করাকে বলা হয় পেনিট্রেশন।

উদ্ভিদবিজ্ঞান-১ (নন-মেজর)ঃ Plant pathology suggestion(রোগতত্ত্ব সাজেশন) উদ্ভিদ রোগতত্ত্ব

প্রশ্ন-৭৭ : অ্যাসােরিয়াম কি?
ছত্রাক স্পাের পােষক দেহের সংস্পর্শে আসার পর অনুকূল পরিবেশে অঙ্কুরিত হয়ে উৎপন্ন করে। এ জার্মটিউব তুকের উপর দিয়ে কিছুটা বৃদ্ধি পেয়ে থেমে যায় ও মাথাটা ফুলে চ্যাপ্টা কুশনের আকৃতি নেয় যা অ্যাপ্রেসােরিয়াম প্যাথােজেন পােষক কোষে প্রবেশ করে সেখানে প্রাথমিকভাবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে পারলে সে পর্যায়কে বলা হয় ইনফেকশন।

প্রশ্ন-৭৮ : ইনফেকশন অর্থ কি?
উত্তর : ক্ষত সৃষ্টি হওয়া।

ক বিভাগ

প্রশ্ন-৭৯ Localised infection কি?
উত্তর : প্যাথােজেন যে স্থানে প্রবেশ করবে সে স্থানে বা প্রবেশ পথের চারপাশে অল্প বিস্তার স্থানে সীমাবদ্ধ থেকে রােগ সৃষ্টিকে Localised Infection বলে।

প্রশ্ন-৮০; সিস্টেমিক ইনফেকশন কি?
উত্তর : যে স্থানে প্যাথােজেন প্রবেশ করবে সেখান থেকে দূরে গিয়ে বা অনেক স্থান জুড়ে বিস্তৃত হতে পারে এটি সিস্টেমিক ইনফেকশন।

প্রশ্ন-১: কলােনাইজেশন কি?
উক্ত : ছত্রাকের ইনফেকশন হাইফা পােষকের সাথে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক গড়ে তােলে খাদ্য শােষণ ও আরও সম্প্রসারিত হয়ে টিস্যু নষ্ট করতে পারলে এবং টক্সিন ও অন্যান্য ক্ষতিকারক দ্রব্য উৎপন্ন করে নতুন নতুন কোষ আক্রমণ করলে রােগ সফলভাবে সৃষ্টি হয় বা বিস্তার লাভ করে গাছের মধ্যে রােগ উৎপাদকের এ বিস্তারকে কলােনাইজেশন বলে।

প্রশ্ন-৮২ : Over wintering ও over summering কি?
: অতি শীত বা অগ্রিীষ্মকালীন প্রতিকূল পরিবেশে প্যাথােজেনের বেঁচে থাকার সামর্থ্যকে Over wintering ও Over summering বলে।

প্রশ্ন-৮৩ : ছত্রাকবারক কি?
উত্তর : যে সমস্ত রাসায়নিক পদার্থ ব্যবহার করে ছত্রাকজনিত রােগ দমন করা হয় তাকে ছত্রাকবারক বলে।

প্রশ্ন-৮৪: Pesticide কি?
উত্তর : কীটনাশক ঔষধসহ সব রােগ প্রতিরােধ পদার্থকে একত্রে Pesticide বলে।

প্রশ্ন-৮৫: Bactericide কি?
উত্তর ; ব্যাকটেরিয়াজনিত রােগ দমনে ব্যবহৃত পদার্থকে Bactericide বলে।

Plant pathology suggestion(রোগতত্ত্ব সাজেশন) উদ্ভিদ রোগতত্ত্ব

প্রশ্ন-৮৬ : Herbicide কি?
উত্তর : সপুষ্পক গাছ দ্বারা সৃষ্ট রােগ নিয়ন্ত্রণে ব্যবহৃত পদার্থ ।

প্রশ্ন-৮৭ সিস্টেমিক ছত্রাকবারক কি?
উত্তর : যে সমস্ত ছত্রাকবারক পােষক দেহের প্রয়ােগ স্থান থেকে পরিশােধিত হয়ে দেহের বিভিন্ন স্থানে পরিবাহিত হয়ে ছত্রাকের উপর বিষক্রিয়া করে তাদেরকে ধ্বংস করে বা পােষকের রােগ প্রতিরােধ ক্ষমতা বাড়িয়ে দেয় তাই সিস্টেমিক ছত্রাকবারক।

প্রশ্ন-৮৮ : প্রােটেকট্যান্ট ছত্রাকবারক কি?
উত্তর : যে সমস্ত ছত্রাকবারক কেবল সংক্রমণের পূর্বে প্রয়ােগ করলে সংক্রান্ত হয় না তাদেরকে প্রােটেকট্যান্ট ছত্রাকবারক বলে।

প্রশ্ন-৮৯ কয়েকটি তাম্রগঠিত ছত্রাকবারকের নাম লিখ।
Bordeaux mixture, Burgandy mixture, চেসাল্ট যৌগ Perenox ইত্যাদি।

৯০ : কয়েকটি পারদঘটিত ছত্রাকবারকের নাম লিখ।
এগ্রোসান জি এন, মারকিউরিক ক্লোরাইড।

ক বিভাগ

প্রশ্ন-৯১ : কয়েকটি সালফারঘটিত ছত্রাকবারকের নাম লিখ।
লাইম সালফার, থাইরাম, জিরাম ইত্যাদি।

প্রশ্ন-৯২ : একটি আদর্শ ছত্রাকবারকের বৈশিষ্ট্য কি?
পরজীবীকে সম্পূর্ণরূপে ধ্বংস করে বা এর বৃদ্ধি এবং বংশ বৃদ্ধি রহিত করে, পেষিক উদ্ভিদের ক্ষতি সাধন করে না, দামে সস্তা ইত্যাদি।

প্রশ্ন-১৩ : কয়েকটি তান্ত্রিক ছত্রাকবারকের নাম লিখ।
Oxanthiins, Terrazol, PP-675, Calixin Rusiai

প্রশ্ন-৯৪ : কয়েকটি প্রােটেকট্যান্ট ছত্রাকবারকের নাম লিখ।
উত্তর : বাের্দো মিশ্রণ, বার্গান্ডি মিশ্রণ, Ferban, Captan ইত্যাদি।

প্রশ্ন-৯৫ : বাের্দোমিশ্রণের প্রধান উপকরণ কি?
উত্তর : CuSO4. 5H2O (তুতে), কলিচুন (Ca2O) ও পানি।

প্রশ্ন-৯৬ : বার্গান্ডি মিশ্রণের প্রধান উপকরণ কি?
উত্তর : CuSO4. 5H2O (তুতে), Na2CO3 ও পানি।

বোটানিঃ Plant pathology suggestion(রোগতত্ত্ব সাজেশন) উদ্ভিদ রোগতত্ত্ব

প্রশ্ন-৯৭ : বাের্দো মিশ্রণ কে আবিষ্কার করেন?
উত্তর : Millardet (মিলারদে)

প্রশ্ন-৯৮ : বার্গান্ডি মিশ্রণ কে আবিষ্কার করেন?
Masson

প্রশ্ন-৯৯ : বাের্দো মিশ্রণ কত সালে আবিষ্কৃত হয়?
1883 সালে।

প্রশ্ন-১০০: বার্গান্ডি মিশ্রণ কত সালে আবিষ্কৃত হয়?
উত্তর 1887 সালে।

প্রশ্ন-১০১ : বাের্দো মিশ্রণের অনুপাত কত?
উত্তর CuSO4. 5H2O : CaO + H2O 51bs : 51bs : 50 Gallons.

প্রশ্ন-১০২: বার্গান্ডি মিশ্রণের অনুপাত কত?
উত্তর : CuSO4.5H2O : Na2CO3 : H20 ১০ পাউন্ড : ১২ পাউন্ড : ৫০ গ্যালন।

প্রশ্ন-১০৩; অ্যান্টিবায়ােটিক কি?
উত্তর এটি এক প্রকার রাসায়নিক যৌগ যা কোন জীবাণু দ্বারা উৎপন্ন হয় এবং অন্য অনেক জীবাণুর জন্য ক্ষতিকর।

প্রশ্ন-১০৪ : লাইম সালফার কিভাবে তৈরি হয়?
উত্তর CaO : Sulphur : Water = 7 kg : 9 kg : 250 liter অনুপাতে মিশিয়ে তৈরি করা হয়।

ক বিভাগ

উদ্ভিদবিজ্ঞান-১ (নন-মেজর)

প্রশ্ন-১০৫: কয়েকটি অজৈব সালফার যৌগের নাম লিখ।
উত্তর সালফার গুড়া, পানিতে মিশ্রিত সালফার, লাইম সালফার ইত্যাদি।

প্রশ্ন-১০৬: কয়েকটি জৈব সালফার যৌগের নাম লিখ।
Thiram, Ziram, Ferbam, Nabam ইত্যাদি।

প্রশ্ন-১০৭: বাণিজ্যিক ছত্রাকবারকগুলাে কয়টি অবস্থায় পাওয়া যায় ও কি কি?
উত্তর ৩টি অবস্থায় পাওয়া যায় (i) Water dispersible power (ii) Dust (ii) Suspension.

প্রশ্ন-১০৮: Spary করার সুবিধা কি?
Spary করলে ছত্রাকবারক সহজে উদ্ভিদের সর্বাঙ্গে লেগে যায় এবং বেশি দিন স্থায়ী হয় ।

প্রশ্ন-১০৯: বীজ শােধন কি?
উত্তর : বীজস্থিত ইনােকুলামকে বীজ থাকা অবস্থায় বিভিন্ন ভৌত ও রাসায়নিক পদ্ধতির মাধ্যমে সরাসরিভাবে অথবা বীজ ও রােগজীবাণুর অঙ্কুরােদগমের সময় প্যাথােজেনকে মেরে ফেলা হয়, তাই বীজশােধন।

প্রশ্ন-১১০: বীজশােধনে ভৌত পদ্ধতিসমূহ কি?
গরম পানিতে শােধন, বায়বীয় পানি শােধন, শুষ্ক তাপে শােধন ইত্যাদি

প্রশ্ন-১১১ : বীজ শােধনে রাসায়নিক পদ্ধতিসমূহ কি?
উত্তর স্টপ ট্রিটমেন্ট, ডাস্ট ট্রিটমেন্ট, ওয়েল ট্রিটমেন্ট, ফিউমেগেশন, পিলেটিং ইত্যাদি

প্রশ্ন-১১২: নেমাটোডের কোন অংশ ইনােকুলাম হিসেবে কাজ করে?
উত্তর : ডিম, লার্ভা ইত্যাদি।

প্রশ্ন-১১৩: Actinomycetes-এর কোন অংশ ইনােকুলাম হিসেবে কাজ করে?
উত্তর। : মাইসেলিয়াম ও কনিডিয়া।

প্রশ্ন-১১৪ : উন্নত পরজীবী উদ্ভিদের কোন অংশ ইনােকুলাম হিসেবে ব্যবহৃত হয়?
উত্তর। : বীজ, উদ্ভিদের খণ্ডিত অংশ ।

প্রশ্ন-১১৫: প্রাইমারি ইনােকুলাম কি?
উত্তর। প্রতিকূল অবস্থা কাটানাের পর অনুকূল পরিবেশে ইনােকুলাম নতুনভাবে কোন পােষক উদ্ভিদে রােগ সংক্রমণ করে তাকে প্রাইমারি ইনােকুলাম বলে।

উদ্ভিদবিজ্ঞানঃ Plant pathology suggestion(রোগতত্ত্ব সাজেশন) উদ্ভিদ রোগতত্ত্ব

ক বিভাগ

প্রশ্ন-১১৬ : সেকেন্ডারি ইনােকুলাম কি?
উত্তর : প্রাইমারি ইনােকুলাম অনুপ্রবেশের পর গাছের আক্রান্ত অংশে পুনরায় আক্রান্তকারী পর্যায় উৎপন্ন করে এ আক্রান্তকারী পর্যায়কে সেকেন্ডারি ইনােকুলাম বলে।

প্রশ্ন-১১৭: প্যাথােজেন কিভাবে রােগের বিস্তার ঘটায়?
উত্তর : বীজের সাহাযে, বাতাসের সাহায্যে, পানির সাহায্যে, মাটির সাহায্যে, পতঙ্গের সাহায্যে, উদ্ভিদ ধ্বংসাবশেষের সাহায্যে ইত্যাদি।

প্রশ্ন-১১৮: ছত্রাক কিভাবে অতি শীত ও অতি গ্রীষ্মকালীন অবস্থা অতিক্রম করে?
উত্তর। : মাইসেলিয়াম রূপে, রেস্টিং স্পােররূপে, ক্লেরােশিয়াম রূপে সংক্রমিত উদ্ভিদের ধ্বংসাবশেষে ইত্যাদি।

প্রশ্ন-১১৯ : Defense Mechanism কি?
উত্তর। উদ্ভিদদেহে প্যাথােজেনের আক্রমণ প্রতিহত ও দমন করার কৌশলকে Defense Mechanism বলে।

প্লান্ট প্যাথােলজিঃ Plant pathology suggestion(রোগতত্ত্ব সাজেশন) উদ্ভিদ রোগতত্ত্ব

প্রশ্ন-১২০: পােষক কয় ধরনের প্রতিরােধ কৌশল গ্রহণ করে এবং কি কি?
(i) Structural Defense, (ii) Bio-chemical Defense.

প্রশ্ন-১২১: গঠনগত প্রতিরােধ কৌশল কি?
উত্তর : উদ্ভিদ দেহের কোষ ও কণায় দৃশ্যমান পরিবর্তনগত প্রতিরােধ ব্যবস্থাকে গঠনগত প্রতিরােধ বলে ।

প্রশ্ন-১২২: জৈব রাসায়নিক প্রতিরােধ কৌশল কি?
উত্তর এক বা একাধিক সুনির্দিষ্ট পদার্থের অনুপস্থিতি, উপস্থিতি বা সৃষ্টির মাধ্যমে পােষক উদ্ভিদ যে প্রক্রিয়ার রােগ প্রতিরােধ করে তাকে জৈব রাসায়নিক প্রতিরােধ কৌশল বলে ।

প্রশ্ন-১২৩: সক্রিয় প্রতিরােধ কি?
রােগ প্রতিরােধী জাত কর্তৃক যে সকল পােষক রােগ প্রতিরােধী তাদের দ্বারা যে রােগ প্রতিরােধ ব্যবস্থা গড়ে ওঠে তাই সক্রিয় প্রতিরােধ।

প্রশ্ন-১২৪: নিক্রিয় প্রতিরােধ কি?
উওর প্যাথােজেন উদ্ভিদদেহে প্রবেশের সময় বা প্রবেশের পর বিস্তৃত হওয়ার সময় যে সকল বাধার সৃষ্টি হয় তাই নিষ্ক্রিয় প্রতিরােধ।

প্রশ্ন-১২৫: প্যাথােজেন কিভাবে পােষক দেহে প্রবেশ করে?
কিউটিকল, এপিডার্মিস, পেরিডার্ম, পরিবহন কলাগুচ্ছ এসব অতিক্রম করে প্যাথােজেনে প্রবেশ করতে হয়।

প্রশ্ন-১২৬: কিউটিকল কি?
উদ্ভিদের এপিডার্মিসের উপর যে অকোষী আবরণ থাকে তাকে কিউটিকল বলে।

প্রশ্ন-১২৭: প্রাকৃতিক রসমূহ কি?
উত্তর : স্টোমাটা, লেন্টিসেল, হাইডাথােড ইত্যাদি।

প্রশ্ন-১২৮; কর্ক স্তর কি?
ছত্রাক, ব্যাকটেরিয়া, ভাইরাস, নেমাটোড প্রভৃতি প্যাথােজেনের যে কোন একটি দ্বারাও যদি উদ্ভিদ আক্রান্ত হয় তবে রােগ প্রতিরােধক্ষম উদ্ভিদ আক্রমণের প্রতিক্রিয়ায় অনেক গাছে আক্রান্ত স্থানের সামনে বা আশেপাশে নতুনভাবে সৃষ্ট ক্যাম্বিয়ামের কার্যকলাপের ফলে কর্কন্তর গড়ে ওঠে।

প্রশ্ন-১২৯; মােচন স্তর কি?
উত্তর প্যাথােজেন দ্বারা আক্রান্ত অংশের কিছুটা দূরে উপত্বক থেকে নিম্নত্বক পর্যন্ত লম্বালম্বিভাবে এক থেকে দু’টি স্তরের কোষ বৃদ্ধি পেতে থাকে এবং সিডল ল্যামেলা নষ্ট হয়ে পাশাপাশি অবস্থিত দু’টি স্তরের কোষ পরস্পর থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে। কোষের এই বিচ্ছিন্নতা উপত্বক থেকে নিম্নতক পর্যন্ত বিস্তৃত হয়ে মােচন স্তর সৃষ্টি হয়।

ক বিভাগ

প্রশ্ন-১৩০; টাইলােসিস কি?
উত্তর যখন সরস কাষ্ঠ সার কাঠে পরিণত হয় তখন ট্রাকিয়া সংলগ্ন জাইলেম প্যারেনকাইমা কোষগুলাে বেড়ে অন্যদিকে জায়গা না পেয়ে তার মিডল ল্যামেলা ট্রাকিয়ার কূপ পর্দার মধ্য দিয়ে গহ্বরে প্রবেশ করে বেলুনের ন্যায় ফুলে উঠে তাই টাইলােসিস।

প্রশ্ন-১৩১: ফাইটোঅ্যালেক্সিন কি?
উত্তর : এটি এক প্রকার ফিনলিক যৌগ যা উদ্ভিদে বা প্যাথােজেনে স্বাভাবিক অবস্থায় বিদ্যমান থাকে না। কিন্তু পােষক-প্যাথােজেন জুটির মিথস্ক্রিয়ায় উৎপন্ন হয় এসব পদার্থ ফাইটোঅ্যালেক্সিন।

উদ্ভিদবিজ্ঞান-১ (নন-মেজর) )

প্রশ্ন-১৩২: কয়েকটি ফাইটোঅ্যালেক্সিনের নাম লিখ।
ফ্যাসিওলিন, কিভিটোন, পাইজাটিন, মেডিকার্পিন ইত্যাদি।

প্রশ্ন-১৩৩: নিবীকরণ বা detoxification কি?
উত্তর : কিছু রােগের ক্ষেত্রে প্যাথােজেনের আক্রমনের ফলে রােগ প্রতিরােধী জাতের গাছে এমন সব বিপাকীয় পদার্থ উৎপন্ন হয় যা টক্সিনকে নিষ্ক্রিয় করে ফেলে এ ধরনের রােগ প্রতিরােধ পদ্ধতিকে detoxification বলে ।

প্রশ্ন-১৩৪: অতিসংবেদনশীলতা কি?
বেমানান পােষাক পরজীবী জুটিতে আক্রমণের পর ছত্রাক হাইফা গাছের দেহকোষে প্রবেশ করার সাথে সাথে চারদিকে কিছু কোষ খুব দ্রুত মরে হালকা বাদামি রং ধারণ করে চারদিকের কোষগুলাে দ্রুত মরে যাওয়ায় বাইরের কোষ থেকে খাদ্য ভিতরে প্রবেশ করতে পারে না, ফলে ছত্রাক মারা যায়। ছত্রাকের আক্রমণ প্রতিহত করার জন্য রােগ প্রতিরােধী জাতের গাছের এ ধরনের প্রতিক্রিয়াকে অতি সংবেদনশীলতা বলে ।

প্রশ্ন-১৩৫: ‘অতি সংবেদনশীলতা’ শব্দটি প্রথম কে ব্যবহার করেন?
উত্তর : যুক্তরাষ্ট্রের বিজ্ঞানী E.C. Stakman ১৯১৫ খ্রিস্টাব্দে।

প্রশ্ন-১৩৬: প্যাথােজেনের বিরুদ্ধে পােষক উদ্ভিদের প্রতিরােধের কৌশল কয় ধরনের ও কি কি?
উত্তর ২ ধরনের (i) গঠনগত প্রতিরােধ কৌশল, (i) জৈব-রাসায়নিক প্রতিরােধ কৌশল।

প্রশ্ন-১৩৭: কয়েকটি গঠনগত প্রতিরােধ কৌশলের নাম লিখ।
কর্কন্তর সৃষ্টির মাধ্যমে, মােচন স্তর সৃষ্টির মাধ্যমে, টাইলােসিস গঠনের মাধ্যমে, আঠা সঞ্চারের মাধ্যমে, কোষীয় প্রতিরােধ ব্যবস্থা, সাইটোপ্লাজমীয় প্রতিরােধ ব্যবস্থা ইত্যাদি। 1

প্রশ্ন-১৩৮: কয়েকটি জৈব রাসায়নিক প্রতিরােধ কৌশলের নাম লিখ।
উত্তর ফিনলিক যৌগজনিত প্রতিরােধ, প্যাথােজেন সৃষ্ট টক্সিন, নির্বীষকরণজনিত প্রতিরােধ, জিন নিয়ন্ত্রিত প্রতিরােধ ইত্যাদি।

প্রশ্ন-১৩৯ : ছত্রাক কি?
যে সকল অপুষ্পক উদ্ভিদ ইউক্যারিওটিক, ক্লেরােফিলবিহীন, সমাঙ্গদেহী, মৃতভােজী বা পরজীবী, রেণু বহনকারী এবং যারা সাধারণত যৌন ও অযৌন পদ্ধতিতে জনন সম্পন্ন করে এবং যাদের শাখান্বিত সূত্রাকার দেহের গঠনগুলাে সেলুলােজ ও কাইটিন বা উভয়প্রকার পদার্থ সমন্বিত কোষপ্রাচীর দ্বারা পরিবেষ্টিত থাকে, তাদেরকে ছত্রাক বলে।

ক বিভাগ

প্রশ্ন-১৪০: ছত্রাকে কত প্রকার জনন ঘটে?
উত্তর ছত্রাকে তিন প্রকার জনন পরিলক্ষিত হয়। যথা :১। যৌন জনন (Sexual reproduction) ২। অযৌন জনন (Asexual reproduction) ৩। অঙ্গজ জনন (Vegetative reproduction)

প্রশ্ন-১৪১: কয়েকটি রােগ সৃষ্টিকারী ছত্রাকের নাম লেখ।
উত্তর নিম্নে কয়েকটি রােগ সৃষ্টিকারী ছত্রাকের নাম উল্লেখ করা হল। যথা :১। Ustilago; ২। Puccinia; ৩। Pythium; ৪। Helminthosporium; ৫। Macrophomina ইত্যাদি।

প্রশ্ন-১৪২: চীনাবাদামের টিকা রােগ সৃষ্টিকারী পরজীবীর নাম কি?
Cercosporidium personata.

প্রশ্ন-১৪৩: পাটগাছের কাণ্ডপঁচা রােগ সৃষ্টিকারী জীবাণুর নাম লিখ।
উত্তর। : Macrophomina phaseoli.

প্রশ্ন-১৪৪: পাটের এন্ত্রাকনােজ রােগ সৃষ্টিকারী পরজীবির নাম কি?
উত্তর Colletotrichum corchorum.

প্রশ্ন-১৪৫: পাট গাছের কালপট্টি রােগ সৃষ্টিকারী পরজীবির নাম কি?
উত্তর। Diploida corchori.

প্রশ্ন-১৪৬: আলুর বিলম্বিত ধ্বসা রােগ সৃষ্টিকারী পরজীবির নাম কি?
উত্তর Phytophthora infestans.

প্রশ্ন-১৪৭: আলুর আরলি ব্লাইট রােগ সৃষ্টিকারী পরজীবীর নাম লিখ।
উত্তর Alternaria solani.

প্রশ্ন-১৪৮: শিমের মরিচা রােগ সৃষ্টিকারী জীবাণুর নাম লিখ।
উত্তর Uromyces appendiculatus

প্রশ্ন-১৪৯: শিমের পাতায় দাগ রােগ সৃষ্টিকারী পরজীবীর নাম লিখ।
উত্তর। Cercospora colunaris.

প্রশ্ন-১৫০: ধানগাছের পাতায় বাদামী দাগ রােগ সৃষ্টিকারী ছত্রাকের নাম কি?
Sclerotium oryzae.

প্রশ্ন-১৫১: ধানের পাতা পােড়া রােগ সৃষ্টিকারী ছত্রাকের নাম কি?
উত্তর Drechslera oryzae.

প্রশ্ন-১৫২: ধানের কাণ্ডপঁচা রােগ সৃষ্টিকারী পরজীবীর নাম লিখ।
উত্তর Pyricularia oryzae.

প্রশ্ন-১৫৩: আঁখের লাল পঁচা রােগ সৃষ্টিকারী ছত্রাকের নাম লিখ।
উত্তর Colletotrichum fulcatum

প্রশ্ন-১৫৪: গমের কাণ্ডে মরিচা রােগ সৃষ্টিকারী ছত্রাকের নাম লিখ।
উত্তর Puccinia graminis tritici.

প্রশ্ন-১৫৫: গম গাছের আলগা ভুষা বা ঝুল রােগ সৃষ্টিকারী ছত্রাকের নাম কি?
উত্তর : Ustilago tritici.

প্রশ্ন-১৫৬: কলা গাছের পানামা রােগ সৃষ্টিকারী ছত্রাকের নাম লিখ।
উত্তর। Fusarium oxysporum.

উদ্ভিদবিজ্ঞান-১ (নন-মেজর)

খ-বিভাগ : সংক্ষিপ্ত প্রশ্ন

১। উদ্ভিদ রােগবিজ্ঞান ও উদ্ভিদ রােগ বলতে কী বােঝ ?
২।এবং উদ্ভিদ রােগ সম্পর্কে তােমার ধারণা ব্যাখ্যা কর।
৩। কর্কের স্বীকার্য উল্লেখ কর।
৪। উদ্ভিদ রােগ নিয়ন্ত্রণ বা দমন বলতে কী বােঝ ? এর মূলনীতি লেখ ।
৫। উদ্ভিদ সঙ্গরােধ সম্পর্কে লিখ।

৬। উদ্ভিদ রােগের পূর্বাভাস কী ? পূর্বভাস প্রদানের উপকারিতা লেখ।

৭। নিম্নলিখিত উদ্ভিদ রােগের প্যাথােজেন ও পােষকের বৈজ্ঞানিক নাম লেখ।
i) ধানগাছের পাতার বাদামি দাগ রােগ (Brown Spot disease in the leaf of Rice).
ii) পাটগাছের কাণ্ড পচা রােগ (Stem rot disease of Jute)
iii) লেবুর ক্যাংকার রােগ (Canker disease of Citrus).
iv) ধানের টুংরা রােগ (Tungro disease of Rice).

গ-বিভাগ : রচনামূলক প্রশ্ন।

১। উদ্ভিদরােগের কারণসমূহ আলােচনা কর।
২। কিভাবে উদ্ভিদ রােগ শনাক্তকরা যায় বর্ণনা কর।
৩। উদ্ভিদরোগসমূহের বিস্তারিত শ্রেণিবিন্যাস কর।

৪। উদ্ভিদ রােগের গুরুত্ব বর্ণনা কর।
রােগলক্ষণ বলতে কী বুঝ? উদাহরণসহ উদ্ভিদের বিভিন্ন প্রকার রােগের লক্ষণসমূহ আলােচনা কর। উত্তর সংকেত :

৬। সংক্ষেপে উদ্ভিদদেহে ব্যাকটেরিয়া, ভাইরাস ও ছত্রাক জনিত রােগলক্ষণসমূহ আলােচনা করা।
৭। উদ্ভিদ রােগ দমনের বিভিন্ন পদ্ধতির বর্ণনা দাও।
৮। উদ্ভিদ রােগের পূর্বাসের ভিত্তিসমূহ আলােচনা কর ।

৯। নিম্নিলিখিত উদ্ভিদ রােগসমূহের জীবাণুর নাম রােগের লক্ষণ, রােগচক্র ও নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা লিখ।
i) ধানগাছের পাতার বাদামি দাগ রােগ (Brown spot disease in the leaf of Rice).
ii) পাটগাছের কাণ্ড পচা রােগ (Stem rot disease of Jute).

iii) লেবুর ক্যাংকার রােগ (Canker disease of Citrus).
iv) ধানের টংরাে রােগ (Tungro diseane of rice).

এ অধ্যায় থেকে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের বিগত বছরের পরীক্ষায় যে প্রশ্নগুলাে এসেছে।

পরীক্ষা-২০০২
রােগলক্ষণ বলতে কী বুঝ? উদাহরণসহ উদ্ভিদের বিভিন্ন প্রকার রােগের লক্ষণসমূহ আলােচনা কর।
(খ) উদ্ভিদের রােগের পূর্বাভাস কী? পাটের কাণ্ড পচা রােগ, ধানের বাদামি দাগ পড়া রােগ এবং সাইট্রাস ক্যাঙ্কার রােগ সৃষ্টিকারী জীবাণুর নাম, লক্ষণ এবং নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা লিখ।

প্লন্ট প্যাথােলজি

পরীক্ষা-২০০৩
টীকা লিখ : (ক) উদ্ভিদ রােগ নিয়ন্ত্রণ (খ) ধানের টুংরাে রোগ

পরীক্ষা-২০০৪
৩। (ক) উদ্ভিদ দেহে প্রকাশ পায় এমন সাধারণ রােগসমূহের লক্ষণ সমূহ আলােচনা কর।
(খ) উদ্ভিদ রােগ দমনে অনুসূত মূলনীতি সমূহ সংক্ষেপে বর্ণনা কর.
(গ) পাটের কাণ্ড পচা রােগের জীবাণুর নাম, লক্ষণ এবং প্রতিকার উল্লেখ কর।

৪। টীকা লিখ : (গ) পােষক-পরজীবী সম্পর্ক

পরীক্ষা-২০০৫
৫। (ক) উদ্ভিদরােগের পূর্বাভাস কী ? পূর্বাভাস প্রদানের উপকারিতা লিখ ।

(খ) উদ্ভিদ সঙ্গনিরােধ সম্পর্কে লিখ।
(গ) ধানের বাদামি দাগ রােগ সৃষ্টিকারী জীবাণুর নাম, লক্ষণ এবং নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা লিখ ।

পরীক্ষা-২০০৬
৬। (ক) উদ্ভিদদেহে সৃষ্টি হয় এমন বিভিন্ন রােগ লক্ষণসমূহ আলােচনা কর ।
(খ) উদ্ভিদ রােগসমূহের বিস্তারিত শ্রেণিবিন্যাস কর।
(গ) রােগ সৃষ্টিকারী জীবাণুর নাম, লক্ষণ এবং দমন প্রক্রিয়া উল্লেখপূর্বক পাটের কাণ্ড পচা এবং লেবুর ক্যাংকার সম্পর্কে লিখ।

৭। টীকা লিখ : উদ্ভিদ রােগের পূর্বাভাস।

পরীক্ষা-২০০৭
৮। (ক) উদ্ভিদ রােগের কারণসমূহ আলােচনা কর।
(খ) রােগের পূর্বাভাসের প্রয়ােজনীয়তা ব্যাখ্যা কর
(গ) লেবুর ক্যাঙ্কার এবং ধানের টুংরাে রােগের রােগজীবাণুর নাম, রােগের লক্ষণ এবং রােগ দমন পদ্ধতি সম্পর্কে লিখ ।

৯। টীকা লিখ : (ক) ককের স্বীকার্য (খ) উদ্ভিদ সঙ্গনিরােধ
১০। (ক) রােগলক্ষণ বলতে কী বুঝ ? উদাহরণসহ উদ্ভিদের বিভিন্ন প্রকার রােগের লক্ষণসমূহ আলােচনা কর।

(খ) ধানের বাদামি দাগ পড়া রােগ ও পাটের কাণ্ড পচা রােগ সৃষ্টিকারী জিবাণুর নাম, লক্ষণ এবং নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা লিখ ।

১১। টীকা লিখ : উদ্ভিদ রােগের পূর্বাভাস।

পরীক্ষা-২০০৯
১২। লেবুর ক্যাংকার ও ধানের টুংরাে রােগ এর রােগ জীবাণুর নাম, লক্ষণ ও নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা লিখ।

১৩। টীকা লিখ : (ক) উদ্ভিদের সঙ্গনিরােধ; (খ) উদ্ভিদ রােগসমূহের শ্রেণিবিন্যাস

পরীক্ষা-২০১০
১৪। (ক) সংক্ষিপ্ত প্রশ্ন :
(i) লেবুর ক্যাংকার রােগের জীবাণুর নাম লেখ ।
(ii) বসন্ত রােগের জীবাণুর নাম লিখ।

উদ্ভিদবিজ্ঞান-১ (নন-মেজর)ঃ Plant pathology suggestion(রোগতত্ত্ব সাজেশন) উদ্ভিদ রোগতত্ত্ব

১৫। (ক) রােগের পূর্বাভাব সংক্ষেপে লেখ।
(খ) ধানের বাদামি দাগ রােগটির চারটি প্রধান লক্ষণ লিখ ।

১৬। (ক) উদ্ভিদ রােগের শ্রেণিবিন্যাস কর। উদ্ভিদ রােগের গুরুত্ব উল্লেখ কর।

(খ) পাটের কাণ্ড পচা রাগের জীবাণুর নাম লেখ এবং রােগ লক্ষণ ও রােগ নিয়ন্ত্রণ পদ্ধতি বর্ণনা কর।

১৭। নিম্নের রােগসমূহের জীবাণুর নাম, লক্ষণ ও দমন প্রক্রিয়া উল্লেখ কর :
(ক) পাটের কাণ্ড পচা রােগ;
(খ) ধানের টুংরাে রােগ
১৮। (ক) সংক্ষিপ্ত প্রশ্ন :
i) উদ্ভিদ রােগবিজ্ঞানের সংজ্ঞা দাও।
ii) ছত্রাকবারক কী?
ii) বাের্দোমিশ্রণের প্রধান উপকরণ কী ?
১৯। (ক) উদ্ভিদ সঙ্গনিরােধ সম্পর্কে লিখ।
(খ) ককের স্বীকার্যগুলাে উল্লেখ কর।

২০। লেবুর ক্যাংকার রােগ ও ধানের বাদামি দাগ রােগের রােগ জীবাণুর নাম, লক্ষণ ও নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা লিখ । ১০

পরীক্ষা-২০১২
২১। উদ্ভিদ রােগ পূর্বাভাস প্রদানের উপকারিতা লিখ।
২২। পাঠের কাণ্ড পচা রােগ ও ধানের টুংরাে রােগের রােগজীবাণুর নাম, লক্ষণ ও নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা লিখ

১৪। নিম্নলিখিত উদ্ভিদ রােগসমূহের প্যাথােজেনের নাম, উল্লেখপূর্বক রােগ লক্ষণ ও দমন পদ্ধতি বর্ণনা কর।

(ক) ধানের বাদামি দাগ রােগ
(খ) সাইট্রাস ক্যাংকার

পরীক্ষা-২০১৪
৮। উদ্ভিদ রােগের পূর্বাভাস সংক্ষেপে লিখ।
১২। পাটের কাণ্ড পচা রােগ ও ধানের টুংরাে রােগের রােগজীবাণুর নাম, লক্ষণ ও নিয়ন্ত্রণের ব্যবস্থা লিখ ।

১৬। উদ্ভিদ রােগ লক্ষণের শ্রেণিবিন্যাস কর।
কর্কের স্বীকার্য উল্লেখ কর।

এই Plant pathology suggestion( রোগতত্ত্ব সাজেশন) উদ্ভিদ রোগতত্ত্ব ছাড়াও আরো জানতে ক্লিকঃ