লালসালু উপন্যাসের জ্ঞানমূলক প্রশ্ন ও উত্তর (এইচএসসি বাংলা ১মপত্র)

লালসালু উপন্যাসের জ্ঞানমূলক প্রশ্ন উত্তর (এইচএসসি বাংলা ১মপত্র): শিক্ষার্থীরা তোমাদের বাংলা সহপাঠ লালসালু উপন্যাসের সর্বশেষ বোর্ড প্রশ্ন উত্তরসহ এখানে দিয়েছি। আশাকরি তোমরা এখান থেকে প্রস্তুতি ও পরীক্ষার ধারণা নিতে পারবে।

লালসালু উপন্যাসের জ্ঞানমূলক প্রশ্ন উত্তর (এইচএসসি বাংলা ১মপত্র)

সাজেশন(বোর্ড)

প্রশ্ন ১। গারো পাহাড় মধুপুর গড় থেকে কত দিনের পথ?
উত্তর : গারো পাহাড় মধুপুর গড় থেকে তিন দিনের পথ।

প্রশ্ন ২। কে পক্ষাঘাতে আক্রান্ত?
উত্তর : খেতানির মা পক্ষাঘাতে আক্রান্ত ।

প্রশ্ন ৩। ‘লালসালু’ কোন ধরনের উপন্যাস?
উত্তর : ‘লালসালু’ সামাজিক সমস্যামূলক উপন্যাস ।

প্রশ্ন ৪। খালেক ব্যাপারীর দ্বিতীয় স্ত্রীর নাম কী?
উত্তর : খালেক ব্যাপারীর দ্বিতীয় স্ত্রীর নাম তানু বিবি।

প্রশ্ন ৫। কত বছর বয়সে আমেনা বিবির বিয়ে হয়েছিল?
উত্তর : তেরো বছর বয়সে আমেনা বিবির বিয়ে হয়েছিল।

প্রশ্ন ৬। মজিদ কেন হাসপাতালে গিয়েছিল?
উত্তর : আহত ব্যক্তিদের দেখতে মজিদ হাসপাতালে গিয়েছিল।

প্রশ্ন ৭। ‘লালসালু’ উপন্যাসের ইউনিয়ন বোর্ডের প্রেসিডেন্টের নাম কী?
উত্তর : ‘লালসালু’ উপন্যাসের ইউনিয়ন বোর্ডের প্রেসিডেন্টের নাম মতলুব

Read More

প্রশ্ন ৮। ‘বেচাইন’ শব্দটির অর্থ কী?
উত্তর : ‘বেচাইন’ শব্দের অর্থ অস্থির

প্রশ্ন ৯। আক্কাসের বাবার নাম কী?
উত্তর : আক্কাসের বাবার নাম মোদাব্বের মিঞা।

প্রশ্ন ১০। কে জমিলাকে প্রথম মজিদকে দেখায়?
উত্তর : খোদেজা জমিলাকে প্রথম মজিদকে দেখায় ।

প্রশ্ন ১১। সাত ছেলের বাপের নাম কী?
উত্তর : সাত ছেলের বাপের নাম দুদু মিয়া ।

প্রশ্ন ১২। ‘লালসালু’ উপন্যাসে তানু বিবি কে?
উত্তর : ‘লালসালু’ উপন্যাসে তানু বিবি খালেক ব্যাপারীর দ্বিতীয় স্ত্রী 1

প্রশ্ন ১৩। খালেক ব্যাপারীর প্রথম স্ত্রীর নাম কী?
উত্তর : খালেক ব্যাপারীর প্রথম স্ত্রীর নাম আমেনা বিবি।

প্রশ্ন ১৪। “মরা মানুষ জিন্দা হয় ক্যামনে?”— উক্তিটি কার?
উত্তর : “মরা মানুষ জিন্দা হয় ক্যামনে?”— এ উক্তিটি মজিদের ।

প্রশ্ন ১৫। আক্কাস গ্রামে কী প্রতিষ্ঠা করতে চেয়েছিল?
উত্তর : আক্কাস গ্রামে স্কুল প্রতিষ্ঠা করতে চেয়েছিল ।

প্রশ্ন ১৬। মজিদ কাকে শাড়ি কিনে দিয়েছিল?
উত্তরঃ হাসুনির মাকে


প্রশ্ন ১৭। মজিদকে দেখে প্রথমে জমিলার কী মনে হয়েছিল?
উত্তর : মজিদকে দেখে প্রথমে জমিলার মনে হয়েছিল দুলার (বরের) বাপ ।

প্রশ্ন ১৮। ধলা মিয়া কার ভাই?
উত্তর : ধলা মিয়া খালেক ব্যাপারীর দ্বিতীয় স্ত্রী তানু বিবির বড় ভাই।

প্রশ্ন ১৯। তাহের আর কাদের মজিদকে প্রথম কোথায় দেখেছিল?
উত্তর : তাহের আর কাদের মজিদকে প্রথম মতিগঞ্জের সড়কের উপর দেখেছিল ।

প্রশ্ন ২০। ধলা মিয়া কে?
উত্তর : ধলা মিয়া খালেক ব্যাপারীর দ্বিতীয় স্ত্রী তানু বিবির বড় ভাই।

প্রশ্ন ২১। ‘নিরাক পড়া’ কী?
উত্তর : ‘নিরাক পড়া’ অর্থ হলো বাতাসহীন নিস্তব্ধ গুমোট আবহাওয়া।

প্রশ্ন ২২। মজিদ সবাইকে কী বলে সম্বোধন করে থাকেন?
উত্তর : মজিদ সবাইকে ‘মিয়া’ বলে সম্বোধন করে থাকেন।

প্রশ্ন ২৩। ‘কলমা জানো মিঞা?’ – মজিদ প্রশ্নটি কাকে করেছে?
উত্তর : ‘কলমা জানো মিঞা’ – মজিদ প্রশ্নটি দুদু মিয়াকে করেছে।

প্রশ্ন ২৪। ‘হুড়কা’ শব্দের অর্থ কী?
উত্তর : ‘হুড়কা’ শব্দের অর্থ দরজার খিল।

প্রশ্ন ২৫। মতিগঞ্জের সড়কটা দিয়ে দলে দলে লোক কোন দিকে চলছে?
উত্তর : মতিগঞ্জের সড়কটা দিয়ে দলে দলে লোক উত্তর দিকে চলছে।

লালসালু উপন্যাসের জ্ঞানমূলক প্রশ্ন উত্তর (এইচএসসি বাংলা ১মপত্র)

প্রশ্ন ২৬। রহিমার পেটে কয়টি প্যাচ?
উত্তর : মজিদের মতে রহিমার পেটে চৌদ্দটি প্যাচ আছে।

প্রশ্ন ২৭। ডোমপাড়া থেকে কিসের শব্দ ভেসে আসে?
উত্তর : ডোমপাড়া থেকে ঢোলকের শব্দ ভেসে আসে।

প্রশ্ন ২৮। “ধান দিয়া কী হইবো মানুষের জান যদি না থাকে?”—উক্তিটি কার?
উত্তর : “ধান দিয়া কী হইবো মানুষের জান যদি না থাকে?” উক্তিটি মজিদের প্রথম স্ত্রী রহিমার।

প্রশ্ন ২৯। খালেক ব্যাপারী কে?
উত্তর : খালেক ব্যাপারী মহব্বতনগর গ্রামের ধনী ব্যক্তি, মাতব্বর এবং মজিদের সহযোগী।

প্রশ্ন ৩০। আমেনা বিবি কোন দিন রোজা রাখে?
উত্তর : আমেনা বিবি শুক্রবারে রোজা রাখে।

প্রশ্ন ৩১। ‘লালসালু’ কত সালে প্রকাশিত হয়?
উত্তর : ‘লালসালু’ ১৯৪৮ সালে প্রকাশিত হয়।

প্রশ্ন ৩২। কার উক্তিটি দুই দিকে কাটে?
উত্তর : মজিদের উক্তিটি দুই দিকে কাটে।

প্রশ্ন ৩৩। তাহের-কাদেরের ছোট ভাই কী হতে চায়?
উত্তর : তাহের-কাদেরের ছোট ভাই কেরায়া নায়ের মাঝি হতে চায়।

প্রশ্ন ৩৪। “তোমার দাড়ি কই মিঞা?’ উক্তিটি কে করেছিল?
উত্তর : ‘তোমার দাড়ি কই মিঞা?’ উক্তিটি মজিদ করেছিল আক্কাসকে উদ্দেশ্য করে।

প্রশ্ন ৩৫। আওয়ালপুর ও মহব্বতনগরের মাঝ পথে একটা মস্ত কী গাছ আছে?
উত্তর : আওয়ালপুর ও মহব্বতনগরের মাঝ পথে একটা মস্ত তেঁতুলগাছ আছে ।

প্রশ্ন ৩৬। আমেনা বিবি কে?
উত্তর : আমেনা বিবি খালেক ব্যাপারীর প্রথম স্ত্রী।

প্রশ্ন ৩৭। মজিদের সহযোগী ব্যক্তিটির নাম কী?
উত্তর : মজিদের সহযোগী ব্যক্তিটির নাম খালেক ব্যাপারী।

শীর্ষস্থানীয় কলেজসমূহের প্রশ্ন ও উত্তর

প্রশ্ন ৩৮। খালেক ব্যাপারীর বড় বউ-এর নাম কী?
উত্তর : খালেক ব্যাপারীর বড় বউ-এর নাম— আমেনা বিবি।

প্রশ্ন ৩৯। আওয়ালপুরের পীরের পূর্বপুরুষ কোথায় বাস করত?
উত্তর : আওয়ালপুরের পীরের পূর্বপুরুষ মধ্যপ্রাচ্যের কোনো এক জায়গায় বাস করত।

প্রশ্ন ৪০। ‘দিনাদির অধিকারী’ কে?
উত্তর : দিনাদির অধিকারী’ হচ্ছেন— আল্লাহ্ বা স্রষ্টা।

প্রশ্ন ৪১। মহব্বতনগর গ্রামের মাতব্বর কে?
উত্তর : মহব্বতনগর গ্রামের মাতব্বর হলেন খালেক ব্যাপারী।

প্রশ্ন ৪২। কখন নিরাক পড়ে?
উত্তর : ভাদ্র মাসের মাঝামাঝি সময়ে নিরাক পড়ে।

প্রশ্ন ৪৩। মজিদ তাহের-কাদেরের বাপকে কয় পয়সার সিন্নি দিতে বলে?
উত্তর : মজিদ তাহের-কাদেরের বাপকে পাঁচ পয়সার সিন্নি দিতে বলে।

প্রশ্ন ৪৪। আমেনা বিবির সতিনের নাম কী?
উত্তর : আমেনা বিবির সতিনের নাম তানু বিবি ।

প্রশ্ন ৪৫। খালেক ব্যাপারীর স্ত্রীর নাম কী?
উত্তর : খালেক ব্যাপারীর দুই স্ত্রী, বড় আমেনা বিবি আর ছোট তানু বিবি।

প্রশ্ন ৪৬। মজিদ তার দ্বিতীয় স্ত্রী জমিলাকে কোথায় বেঁধে রাখে?
উত্তর : মজিদ তার দ্বিতীয় স্ত্রী জমিলাকে মাজারের পাশে একটি খুঁটিতে বেঁধে রাখে।

প্রশ্ন ৪৭। মজিদকে প্রথম কারা দেখেছিল?
উত্তর : মজিদকে প্রথম দেখেছিল তাহের ও কাদের ।

প্রশ্ন ৪৮। ‘বাহে মুলুক’ কোথায়?
উত্তর : ‘বাহে মুলুক’ উত্তরবঙ্গে।

প্রশ্ন ৪৯। মজিদের দ্বিতীয় স্ত্রীর নাম কী?
উত্তর : মজিদের দ্বিতীয় স্ত্রীর নাম জমিলা।

লালসালু উপন্যাসের জ্ঞানমূলক প্রশ্ন উত্তর (এইচএসসি বাংলা ১মপত্র)

প্রশ্ন ৫০। তাহের-কাদেরের মায়ের জানাজা কে পড়াবে?
উত্তর : তাহের-কাদেরের মায়ের জানাজা পড়াবে মোল্লা শেখ।

প্রশ্ন ৫১। ‘সুড়ঙ্গ’ কী জাতীয় রচনা?
উত্তর : ‘সুড়ঙ্গ’ সৈয়দ ওয়ালীউল্লাহ্ রচিত একটি নাটক ।

প্রশ্ন ৫২। কার আনুগত্য ধ্রুবতারার মতো অনড়?
উত্তর : রহিমার আনুগত্য ধ্রুবতারার মতো অনড়।

প্রশ্ন ৫৩। দস্তুরমতো দেবংশি কী?
উত্তর : দস্তুরমতো দেবংশি হচ্ছে তেঁতুলগাছটি।

প্রশ্ন ৫৪। কোন্ সড়ক ধরে মজিদ মহব্বতনগর গ্রামে প্রবেশ করেছিল?
উত্তর : মতিগঞ্জের সড়ক ধরে মজিদ মহব্বতনগর গ্রামে প্রবেশ করেছিল।

প্রশ্ন ৫৫। মহব্বতনগরে মজিদ প্রথমে কার বাড়িতে আশ্রয় নেয়?
উত্তর : মহব্বতনগরে মজিদ প্রথমে খালেক ব্যাপারীর বাড়িতে আশ্রয় নেয়।

প্রশ্ন ৫৬। ওটা ছিল নিশানা, আনন্দের আর সুখের কোনটা?
উত্তর : ওটা ছিল নিশানা, আনন্দের আর সুখের— এখানে ওটা হলো থোতামুখো তালগাছটা।

প্রশ্ন ৫৭। মজিদের বড় বউয়ের নাম কী?
উত্তর : মজিদের বড় বউয়ের নাম রহিমা।

প্রশ্ন ৫৮। তাহের-কাদেরের কনিষ্ঠ ভাইয়ের নাম কী
উত্তর : তাহের-কাদেরের কনিষ্ঠ ভাইয়ের নাম রতন।

প্রশ্ন ৫৯। আওয়ালপুরের পীর সাহেবের পূর্বপুরুষগণ এ দেশের কোন জেলায় স্থায়িভাবে বসবাস শুরু করে?
উত্তর : ময়মনসিংহ জেলায়।

প্রশ্ন ৬০। আওয়ালপুরের পীর সাহেবের প্রধান মুরিদ কে?
উত্তর : মতলুব খাঁ ।

লালসালু উপন্যাসের জ্ঞানমূলক প্রশ্ন ও উত্তর (এইচএসসি বাংলা ১মপত্র)

প্রশ্ন ৬১। মৌলবির চোখের কোণটা চকচক করে ওঠে কেন?
উত্তর : বাড়ির ভিটেটার জন্য।

প্রশ্ন ৬২। মহব্বতনগরে কখন নিরাক পড়েছে?
উত্তর : শ্রাবণের শেষাশেষি।

প্রশ্ন ৬৩। মহব্বতনগর গ্রামে নবাগত লোকটি কে?
উত্তর : মজিদ।

প্রশ্ন ৬৪। শস্যহীন জনবহুল অঞ্চলের বাসিন্দাদের সর্বপ্রকার প্রচেষ্টার শেষ হয় কীভাবে?
উত্তর : ভাগাভাগি, লুটোপুটি আর খুনাখুনি করে ।

প্রশ্ন ৬৫। কখন ঝিমধরা রেলগাড়ি সর্পিল গতিতে এসে পৌছায়?
উত্তর : গভীর রাতে।

প্রশ্ন ৬৬। দীর্ঘ রেলগাড়িটি কিসের সঙ্গে তুলনা করা হয়েছে?
উত্তর : অজগর সাপের সঙ্গে।

প্রশ্ন ৬৭। কোনো এক বিগত যুগের চড়ায় কী আটকে আছে?
উত্তর : কেতাবের বিদ্যে।

প্রশ্ন ৬৮। কেতাবগুলোর বিচিত্র অক্ষরগুলো কোথায় আর্তনাদ করে?
উত্তর : দূরান্ত কোনো অতীতকালের অরণ্যে।

প্রশ্ন ৬৯। তলায় পেট শূন্য বলে কিসে পেট ভরে না?
উত্তর : খোদার এলেমে।

প্রশ্ন ৭০। মিহি কণ্ঠে আজান শুনে চমকে ওঠে কে?
উত্তর : এক সরকারি কর্মচারী।

প্রশ্ন ৭১। কার চোখে-মুখে নিঃসঙ্গতার বন্য শূন্যতা ফুটে থাকে?
উত্তর : মৌলবির।

প্রশ্ন ৭২। নতুন খোলসপড়া নব্যশিক্ষিত মুসলমান কে?
উত্তর : এক সরকারি কর্মচারী।

প্রশ্ন ৭৩। দীর্ঘ শালগাছ ছাড়িয়ে কার ক্ষীণগলা জাগে?
উত্তর : মৌলবির ।

প্রশ্ন ৭৪। তাহের কাদেরের বাড়ি কোন গ্রামে?
উত্তর : তাহের ও কাদেরের বাড়ি মহব্বতনগর গ্রামে।

প্রশ্ন ৭৫। অপরাহ্ণে তাহের কাদের বাড়ি ফিরে কী দেখে?
উত্তর : খালেক ব্যাপারীর ঘরে মানুষের জটলা।

প্রশ্ন ৭৬। শীর্ণ লোকটি চিৎকার করে কাকে গালিগালাজ করে?
উত্তর : গ্রামবাসীকে।

প্রশ্ন ৭৭। শীর্ণ লোকটি কার মাজারের কথা বলছিল?
উত্তর : মোদাচ্ছের পীরের।

প্রশ্ন ৭৮। অশীতিপর বৃদ্ধটি কে?
উত্তর : সলেমনের বাপ।

প্রশ্ন ৭৯। মাছের পিঠের মতো কবরটি কী দ্বারা আবৃত?
উত্তর : ঝালরওয়ালা লাল কাপড় দ্বারা।

প্রশ্ন ৮০। গারো পাহাড়ের দিনগুলোর কথা স্মরণ হলে কে শিউরে ওঠে?
উত্তর : মজিদ।

প্রশ্ন ৮১। ‘লালসালু’ উপন্যাসে দশ কথায় কার রা নেই?
উত্তর : রহিমার।

প্রশ্ন ৮২। কার উজ্জ্বল চোখে ঘনায়মান ভয়ের ছায়া?
উত্তর : রহিমার।

প্রশ্ন ৮৩। রহিমার চোখে ভয়ের ছায়া দেখে কে খুশি হয়?
উত্তর : মজিদ।

লালসালু উপন্যাসের জ্ঞানমূলক প্রশ্ন ও উত্তর (এইচএসসি বাংলা ১মপত্র)

প্রশ্ন ৮৪। গ্রামের লোকেরা জমিকে কিসের মতো ভাগ করেছে?
উত্তর : দাবার ছকের মতো।

প্রশ্ন ৮৫। কোন মাসে পানি সরে এলেও জমিতে কচুরিপানা জড়িয়ে থাকে?
উত্তর : কার্তিক মাসে।

লালসালু উপন্যাসের জ্ঞানমূলক প্রশ্ন ও উত্তর (এইচএসসি বাংলা ১মপত্র)

প্রশ্ন ৮৬। এক দুপুরে কালো মেঘের সঙ্গে কী আসে?
উত্তর : ঝড় আর শিলাবৃষ্টি।

প্রশ্ন ৮৭। “খোদাই রিজিক দেনেওয়ালা।” – মজিদ কাকে বলে?
উত্তর : জমায়েত লোকদের।

প্রশ্ন ৮৮। রুপালি ঝালর কিসের আলোয় ঝলমল করে ওঠে?
উত্তর : মোমবাতির আলোয়।

প্রশ্ন ৮৯। মজিদকে কোন মাসে মতিগঞ্জের সড়কে দেখা যায়?
উত্তর : শ্রাবণ মাসে।

প্রশ্ন ৯০। জন্মের কথা নিয়ে মায়ের উক্তি শুনে কার কান লাল হয়ে ওঠে?
উত্তর : হাসুনির মায়ের।

প্রশ্ন ৯১। হাসুনির মা কখন বাড়ি বাড়ি কাজ করার সুযোগ পায়?
উত্তর : বতোর দিনে।

প্রশ্ন ৯২। কী দেখে হাসুনির মায়ের মনে পুলক জাগে?
উত্তর : ধানখেতের তাজা রং দেখে।

প্রশ্ন ৯৩। কথায় কথায় ঠোঁট ফুলাবে, লুটিয়ে পড়ে কাঁদবে এমন একটা বউয়ের মজিদ কখন স্বপ্ন দেখত?
উত্তর : প্রথম যৌবনে।

প্রশ্ন ৯৪। কার কোনো অভিমান চপলতা নেই?
উত্তর : রহিমার।

প্রশ্ন ৯৫। “কী মিঞা? তোমার দিলে কি ময়লা আছে?” – মজিদ কাকে বলে?
উত্তর : তাহেরের বাপকে।

প্রশ্ন ৯৬। “পৌরুষের গর্ব ধূলিসাৎ হয়ে আসে যেন।”— কার?
“উত্তর : তাহেরের বাপের।

প্রশ্ন ৯৭। ঝড় এলে কার হই হই করার অভ্যাস?
উত্তর : হাসুনির মায়ের।

প্রশ্ন ৯৮। “আমারে চাইরডা চিড়া আইনা দে।”- উক্তিটি কার?
উত্তর : তাহেরের বাপের।

প্রশ্ন ৯৯। মতিগঞ্জের সড়ক ধরে কত ক্রোশ দূরে গঞ্জ?
উত্তর : তিন ক্রোশ দূরে।

লালসালু উপন্যাসের জ্ঞানমূলক প্রশ্ন ও উত্তর (এইচএসসি বাংলা ১মপত্র)

প্রশ্ন ১০০। কার জন্য কৌতূহল প্রকাশ করা অর্থহীন?
উত্তর : যে জিনিস বোঝার জন্য নয়।

প্রশ্ন ১০১। কোন ঘটনা মানুষের স্মরণে বহু দিন জাগ্রত হয়ে থাকে?
উত্তর : অপরাধের ঘটনা।

প্রশ্ন ১০২। “খোদার জিনিস খোদা তুইলা লইয়া গেছে।”—উপলব্ধিটি কার?
উত্তর : হাসুনির মায়ের।

প্রশ্ন ১০৩। “বাপ আমাগো নেকবন্দ মানুষ আছিল।”- উক্তিটি কার?
উত্তর : হাসুনির মায়ের।

প্রশ্ন ১০৪। বেগুনি রং, কালো পাড়ের শাড়ি মজিদ কাকে এনে দেয়?
উত্তর : হাসুনির মাকে।

প্রশ্ন ১০৫। গ্রামের অভিনয়ে তার কোন পালা কখন মজিদ এই কথা ভুলে যায়?
উত্তর : বতোর দিনে।

প্রশ্ন ১০৬। “কিন্তু যার অন্তরে খোদা-রসুলের স্পর্শ লাগে, তার কি আর দুনিয়াদারি ভালো লাগে?”- উক্তিটি কার?
উত্তর : মজিদের।

প্রশ্ন ১০৭। খোদা-রসুলের স্পর্শ লাগা ব্যক্তির কোনটি ভালো লাগে না?
উত্তর : দুনিয়াদারি।

প্রশ্ন ১০৮। গৃহস্থদের গোলায় ধান ভরে ওঠার সময় দেশময় কাদের সফর শুরু হয়?
উত্তর : পীরদের।

প্রশ্ন ১০৯। পীর সাহেবের পূর্বপুরুষ কোথা থেকে এই দেশে আসেন?
উত্তর : মধ্যপ্রাচ্যের কোনো এক জায়গা থেকে।

প্রশ্ন ১১০। কার নূরানি চেহারার দীপ্তি দেখে গ্রামবাসীর চোখ ঝলসে যায়?
উত্তর : পীর সাহেবের।

প্রশ্ন ১১১। কিসের আলোয় প্রদীপের আলো নিশ্চিহ্ন হয়ে গেছে?
উত্তর : সূর্যের ।

প্রশ্ন ১১২। জনস্রোতকে কিসের সঙ্গে তুলনা করা হয়েছে?
উত্তর : জনস্রোতকে জোয়ারি ঢেউয়ের সঙ্গে তুলনা করা হয়েছে।

প্রশ্ন ১১৩। অপরাহ্ণে সংবাদ পেয়ে মজিদ কোথায় গেল?
উত্তর : করিমগঞ্জের হাসপাতালে।

প্রশ্ন ১১৪। কয়েকজন যুবক জেহাদি জোশে কোথায় গেল?
উত্তর : পীর সাহেবের সভায়।

প্রশ্ন ১১৫। “সজ্ঞানে না জানলেও তারা একাট্টা, পথ তাদের এক।”— কাদের প্রসঙ্গে বলা হয়েছে?
উত্তর : মজিদ ও খালেক ব্যাপারী প্রসঙ্গে।

প্রশ্ন ১১৬। কে বিস্তর’ জমিজমার মালিক প্রতিপত্তিশালী লোক?
উত্তর : খালেক ব্যাপারী।

প্রশ্ন ১১৭। মজিদ কিসের ভান করে?
উত্তর : মজিদ বজ্রাহত হওয়ার ভান করে ।

প্রশ্ন ১১৮। কার মৃত্যুর দুঃখ তেমন জোরালোভাবে বুকে লাগে না?
উত্তর : বার্ধক্যের শেষ স্তরে পৌঁছানো ব্যক্তির।

প্রশ্ন ১১৯। এক দিনের রোজাতেই কে একেবারে ভেঙে গেছে?
উত্তর : আমেনা বিবি।

প্রশ্ন ১২০। মজিদ কিসের জুতা পায়ে দিয়ে করিমগঞ্জের হাসপাতালে গেল?
উত্তর : ক্যানভাসের জুতা।

প্রশ্ন ১২১। আমেনা বিবি কয় পাকের পর অজ্ঞান হয়ে পড়ে?
উত্তর : আড়াই পাক।

প্রশ্ন ১২২। কী দেখে মজিদের মনে শাস্তিবিধানের ইচ্ছা আরও নিষ্ঠুরভাবে শানিত হয়ে উঠেছিল?
উত্তর : আমেনা বিবির সাদা কোমল পা দেখে।

প্রশ্ন ১২৩। যেখানে কোমলতার ফুল ফোটে সেখানে কী?
উত্তর : সেখানে সাপ জাগে।

প্রশ্ন ১২৪। ঠান্ডা, ধর্মভীরু ও স্বামীভীরু কার বৈশিষ্ট্য?
উত্তর : আমেনা বিবির।

লালসালু উপন্যাসের জ্ঞানমূলক প্রশ্ন ও উত্তর (এইচএসসি বাংলা ১মপত্র)

প্রশ্ন ১২৫। কত দিন পর পর মাজারের গাত্রাবরণ বদলানো হয়?
উত্তর : দু-তিন বছর পর পর।

প্রশ্ন ১২৬। মাজারের গাত্রাবরণ পাল্টানোয় লাভবান হয় কে?
উত্তর : মাজারের গাত্রাবরণ পাল্টানোয় লাভবান হয় মজিদ।

প্রশ্ন ১২৭। “তুমি এত দয়ালু খোদা, তবু তুমি কী কঠিন!”- কথা কে বলেছিল?
উত্তর : কথাটি রহিমা বলেছিল।

প্রশ্ন ১২৮। মোদাব্বের মিঞার ছেলের নাম কী?
উত্তর : মোদাব্বের মিঞার ছেলের নাম আক্কাস।

প্রশ্ন ১২৯। কার দৃষ্টিতে আপন ভাবনায় নিমগ্ন থাকার অস্পষ্টতা পরিলক্ষিত হয়?
উত্তর : আক্কাসের।

প্রশ্ন ১৩০। “হে নাকি ইংরাজি পড়েছে। তা পড়লে মাথা কি আর ঠান্ডা থাকে?”- উক্তিটি কার?
উত্তর : খালেক ব্যাপারীর।

প্রশ্ন ১৩১। ঘরের ম্লান আলোয় কবরের অনাবৃত অংশটিকে কেমন দেখায়?
উত্তর : মৃত মানুষের খোলা চোখের মতো।

প্রশ্ন ১৩২। সমস্ত জীবনের নিষ্ফলতা অন্তঃসারশূন্যতা হঠাৎ কার কাছে মস্তবড় হয়ে পড়ে?
উত্তর : রহিমার কাছে।

প্রশ্ন ১৩৩। কোন মাসে মসজিদের কাজ শেষ হয়?
উত্তর : জ্যৈষ্ঠ মাসে মসজিদের কাজ শেষ হয়।

Read more: 45 bcs information

প্রশ্ন ১৩৪। কাকে পেয়ে রহিমার মনে শাশুড়ির ভাব জাগে?
উত্তর : জমিলাকে পেয়ে।

প্রশ্ন ১৩৫। “সব দিলাম আমি, সব দিলাম। পোলাটার এইবার জান ফিরাইয়া দেন।”— উক্তিটি কার?
উত্তর : শনের মতো চুলওয়ালা খ্যাংটা বুড়ির।

প্রশ্ন ১৩৬। জমিলা অত্যন্ত মনোযোগ সহকারে কী কাটে?
উত্তর : জমিলা অত্যন্ত মনোযোগ সহকারে চুলে সিঁথি কাটে।

প্রশ্ন ১৩৭। মজিদ কী দিয়ে দাঁত মেছোয়াক করে?
উত্তর : নিমের ডাল দিয়ে।

প্রশ্ন ১৩৮। কোন দিন সকাল থেকে লোকেরা চাল-ডাল-মসলা পাঠাতে শুরু করে?
উত্তর : যেদিন শিরনি চড়ানো হবে বলে মজিদ ঘোষণা করে।

প্রশ্ন ১৩৯। কে সজ্ঞানে সুস্থ দেহে মিথ্যা কথা বলছে?
উত্তর : মজিদ।

লালসালু উপন্যাসের জ্ঞানমূলক প্রশ্ন ও উত্তর (এইচএসসি বাংলা ১মপত্র)

প্রশ্ন ১৪০। কে ক্রোধে থরথর করে কাঁপতে থাকে?
উত্তর : জমিলা।

প্রশ্ন ১৪১। মজিদের বুকের কাছে এসে জমিলা কী করল?
উত্তর : মজিদের মুখে থুথু নিক্ষেপ করল।

প্রশ্ন ১৪২। “কী করলা বইন, তুমি কী করলা?”— কথাটি কার?
উত্তর : রহিমার।

প্রশ্ন ১৪৩। মজিদের মতে কখন বেত দিয়া চাবকাতে হয়, চোখে মরিচ দিতে হয়?
উত্তর : জিনের আছর হলে।

প্রশ্ন ১৪৪। কোন দিক থেকে ঝিরঝির শীতল হাওয়া বইতে থাকে?
উত্তর : দক্ষিণ-পশ্চিম কোণ থেকে ঝিরঝির শীতল হাওয়া বইতে থাকে।

প্রশ্ন ১৪৫। কিসের মতো প্রথম শিলাটি এসে পড়ে?
উত্তর : পথভ্রষ্ট উল্কার মতো।

প্রশ্ন ১৪৬। কে পরিষ্কার প্রভাতের অপেক্ষায় বসে থাকে?
উত্তর : রহিমা।

প্রশ্ন ১৪৭। কার পেটওয়ালা ছাগলটা ডাকতে ডাকতে হয়রান হয়?
উত্তর : কাদের মিঞার।

এই সিরাজউদ্দৌলা নাটকের অনুধাবনমূলক প্রশ্ন ও উত্তর (এইচএসসি বাংলা ১মপত্র) ছাড়াও আরো পড়ুন